রাশিয়া ধীরে হলেও বিদেশী কোম্পানীদের জন্য নিজেদের স্ট্র্যাটেজিক জায়গা গুলি খুলে ধরছে. বসন্ত কালেই রাজধানীর মেট্রো রেল ব্যবস্থা নতুন রেল পথ ও স্টেশনের জন্য খেলা টেন্ডার ঘোষণা করেছিল. তখন নিজেদের তরফ থেকে আবেদন পেশ করেছিল বিশ্বের দুই বৃহত্তম কোম্পানী হণ্ডাই ও সিমেন্স. এখন তাদের সঙ্গে আরও যোগ দিয়েছে ফ্রান্সের ভিঞ্চি, যারা মস্কো- সেন্ট পিটার্সবার্গ দ্রুত গতির রেল পথ তৈরী করছে.

মস্কোর মাটির তলার রেল পথ প্রথম থেকেই তৈরী হয়েছিল শুধু পরিবহনের একক হিসাবেই নয়, বরং স্ট্র্যাটেজিক জায়গা হিসাবে. যদি বিদেশী কোম্পানীদের এর আগে কখনও মেট্রো রেল পথের কাজের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েও তাকে, তবে তা হয়েছিল শুধু যন্ত্র সরবরাহের ক্ষেত্রেই. মাটির নীচে বিদেশীদের কাজ করতে যেতে দেওয়া হত না. সেই ভিঞ্চি কোম্পানী থেকেই কয়েক বছর আগে শহরের কেন্দ্রে গাড়ী রাখার উপযুক্ত মাটির নীচে পার্কিং তৈরী করার বিষয়ে প্রস্তাব এসেছিল, তারা এই প্রকল্পে তিরিশ কোটি ডলার বিনিয়োগ করতেও রাজী হয়েছিল, কিন্তু তখন রাজধানীর প্রশাসন তাঁদের ফিরিয়ে দিয়েছিল. কিন্তু রাশিয়া, আর তার সঙ্গে মস্কোও পরিবর্তিত হয়েছে, আরও খোলা হয়েছে. আর বিদেশীদের সেই ধরনের এক সময়ের নিষিদ্ধ জায়গায় কাজ করতে আহ্বান করা – সময়ের দাবী হয়েছে, এই কথা উল্লেখ করে আন্তর্জাতিক সামাজিক পরিবহন জোটের ইউরোএশিয়া আঞ্চলিক অফিসের ডিরেক্টর ভাসিলি তিখনভ বলেছেন:

"সময় এখন বদলেছে: মস্কোর পরিকল্পনাও প্রসারিত হয়েছে, আর সম্ভাবনা ও মানুষও এগিয়ে এসেছেন নতুন. আমাদের মেট্রো রেল পথ বানানোর পদ্ধতি খুবই ভাল, কিন্তু তা বিশ্বের একমাত্র নয়. তাই বোধহয় ভেবে দেখার দরকার আছে যে, অন্য ধরনের মেট্রো তৈরীর পদ্ধতিও রয়েছে. তাদের জন্য দরজা খুলে ধরতে হবে. এখন আর ভয় পাওয়ার মতো কিছু নেই: সেই সমস্ত স্ট্র্যাটেজিক জায়গার প্রয়োজন ফুরিয়েছে, পারমানবিক বোমা হামলার আশঙ্কা, লোক সরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থার দরকার আর নেই. এখন মস্কোর মেট্রো রেল – স্রেফ পরিবহনের কোম্পানী, যা এই বহু লক্ষ মানুষের শহরকে পরিষেবা দিয়ে থাকে, একেবারে সেই রকমেরই, যা রয়েছে নিউ ইয়র্কে, লন্ডনে, কলকাতা বা টোকিও তে".

টেন্ডারে অংশ নেওয়ার মতো সমস্ত আবেদন পত্রই – তা সে রুশ বা বিদেশী, যে কোম্পানীরই হোক, বর্তমানে বিচার করে দেখা হচ্ছে. আর সেই সবই প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে: এখানে বিজয়ী হতে পারবে শুধু তারাই, যাদের দাম ও উত্কর্ষের অনুপাত সবচেয়ে সেরা হবে. বিনিয়োগের জন্য প্রশাসনিক বাধা কম করার জন্য বর্তমানে রাশিয়ার লোকসভাতে রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক কোম্পানী গুলিতে বিদেশী বিনিয়োগ সংক্রান্ত আইনে সংশোধন করা হচ্ছে. জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে মস্কোর মেট্রো রেল ব্যবস্থা এখনও স্ট্র্যাটেজিক জায়গা হয়েই রয়েছে. কিন্তু মাটির নীচের নতুন লাইন, স্টেশন ও হাল্কা ধরনের রেল গাড়ী পরিবহন ব্যবস্থা অনায়াসেই শুধু পরিবহনের কাজ করতে পারে. আর সেখানে বিদেশী কোম্পানীদের অভিজ্ঞতা পুরোপুরি ভাবেই প্রয়োজন হতে পারে. এই কথা "রেডিও রাশিয়াকে" দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে রুশ টানেল (সুড়ঙ্গ) নির্মাণ সংস্থার প্রধান গিওর্গি সিনিতস্কি বলেছেন:

"ফ্রান্স, জার্মানী, ইংল্যান্ড, ইতালির কোম্পানী গুলি খুবই সুন্দর সুড়ঙ্গ ও মেট্রো রেল ব্যবস্থা নির্মাণ করে থাকে. আজকের দিনে এক অন্যতম ভাল সুড়ঙ্গ নির্মাণ কোম্পানী চিনের সুড়ঙ্গ পথ নির্মাণ সংস্থা, তারা দশ বছরে দুশো আশি কিলোমিটার সুড়ঙ্গ বানিয়েছে. এখন একেবারেই অন্য পরিস্থিতি, তাই বিদেশীরা রুশীদের সাথে পারস্পরিক ভাবে লাভজনক নানা রকমের কাজ করছেন. বিরাট সমস্ত জায়গা নির্মাণের জন্য খুলে ধরা হয়েছে. এটা খনিজ তেল গ্যাসের ক্ষেত্রেও সাইবেরিয়াতে হয়েছে, যা আগে নিষেধ ছিল, আরও রাশিয়ার উত্তরের খনিজ তেল খনন ও উত্পাদন ক্ষেত্র, গ্যাস পাইপ লাইন বসানো, তার মধ্যে উত্তর প্রবাহ রয়েছে".

আগামী পাঁচ বছর ধরে রাশিয়ার রাজধানীতে পরিকল্পনা রয়েছে প্রায় ৮৫ কিলোমিটার নতুন মেট্রো রেল পথ তৈরী করা হবে, প্রতি বছরে ১৪টি করে নতুন স্টেশন তৈরী করা হবে. এই সংখ্যা "নতুন মস্কো" তৈরী করার বিষয়ে ঘোষণার আগেই করা হয়েছিল – যা রাজধানীকে শহরের দক্ষিণ পশ্চিমে আরও বিস্তৃত করে তুলবে. আর এর অর্থ হল, পরিকল্পনা নতুন করে সংশোধিত হবে ও বিদেশী কোম্পানীদের এবারে বাস্তবেই সুযোগ এসেছে রাশিয়ার রাজধানীর পরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ করার.