কাজান শহর ইউনিভার্সিয়াড আয়োজনের ক্ষেত্রে চীনের শেনঝেনের থেকে কমতি যাবেনা, আর হয়তো বা তাকে ছাড়িয়ে যাবে. রাসিস্কায়া গাজিয়েতাকে প্রদত্ত এক সাক্ষাত্কারে কাজানের নগরপাল ইলসুর মেতশিন আজ এ কথা ঘোষণা করেছেন. কাজানের সবচেয়ে বড় সুবিধা হল ক্রীড়া নগরী. তিনি আরও উল্লেখ করেছেন, যে কাজানে স্বেচ্ছাসেবকেরা সবাই ভালোমতো ইংরাজী জানে.  তবে কাজানের নগরপাল উল্লেখ করেছেন, যে চীন আরও একবার সারা বিশ্বকে বিস্মিত করেছে. -শুধু ভেবে দেখুন, মাত্র দুঘন্টার উদ্বোধনী অনুষ্টানের আয়োজন করবার জন্য মহাসমুদ্রের পাড়ে আলাদা স্টেডিয়াম বানানো হয়েছে. তিনি এ ব্যাপারে তার উচ্ছাস গোপণ করেননি. মেতশিন জোর দিয়ে বলেছেন, যে কাজান চীনের সফল ইউনিভার্সিয়াড আয়োজনের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নেবে, তবে পরবর্তী ইুনিভার্সিয়াড হবে অনবদ্য.

     রাসিস্কায়া গাজিয়েতা জানাচ্ছে, যে ইুনিভার্সিয়াড উপলক্ষ্যে কাজানে সবশুদ্ধ ২৮টি ক্রীড়াকেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে.