মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন উপ-রাষ্ট্রপতি ডিক চেইনি ২০০৭ সালে রাষ্ট্রপতি জর্জ বুশ জুনিয়ারকে মানাতে চেষ্টা করেছিলেন সিরিয়ার পারমাণবিক রিয়াক্টরের উপর আঘাত হানার জন্য. এ সম্পর্কে বলা হয়েছে তাঁর স্মৃতিকথায়, যার কিছু কিছু অংশ মার্কিনী প্রচার মাধ্যমের হাতে এসেছে, বইটি প্রকাশের আগে. চেইনি বুশকে পরামর্শ দেন “রিয়াক্টর সম্পর্কে সামরিক চরিত্রের ব্যবস্থা” গ্রহণের, যার উপরে তার পরেই আঘাত হানে ইস্রাইলী বিমান বাহিনী. তবে, চেইনির এ প্রস্তাব রাষ্ট্রপতি বুশ জুনিয়ার এবং তাঁর উপদেষ্টারা প্রত্যাখান করেন, তাঁরা বল প্রয়োগের বদলে কূটনৈতিক পদ্ধতির প্রতিই প্রাধান্য দেন. প্রাক্তন উপ-রাষ্ট্রপতি চেইনির স্মৃতিকথায় বুশ জুনিয়ারের প্রশাসনের কর্মীদের প্রতি নেতিবাচক মনোভাব প্রকাশ করা হয়েছে. বিশেষ করে, তিনি প্রাক্তন পররাষ্ট্র সচিব কলিন পাউয়েলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন ইরাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অভিপ্রায় বানচালের ইচ্ছার. ব্যক্তিগতভাবে পাউয়েল ইরাকে যুদ্ধের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে একাধিকবার সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন. একই সঙ্গে চেইনি স্বীকার করেন যে, ইরাকে অনুপ্রবেশের দরুণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যে কাঠিন্য দেখা দিয়েছিল তিনি তার সঠিক মূল্যায়ন করতে পারেন নি.