রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই লাভরভ ঘোষণা করেছেন যে, লিবিয়ার রাজনৈতিক প্রক্রিয়াতে সক্রিয়ভাবে সহযোগিতা করা হবে. তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, মস্কো ও ত্রিপোলি বহু দিনের মৈত্রী ও পারস্পরিক সহযোগিতার বিষয়ে অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে. রাশিয়া এই উত্তর আফ্রিকার দেশে যত দ্রুত সম্ভব যুদ্ধ বন্ধ করা ও সেখানে গণতান্ত্রিক নীতিতে প্রশাসন সৃষ্টির পক্ষে. সব মিলিয়ে লিবিয়াতে বর্তমানে সমস্যার অবসান হতে চলেছে ও খুবই শীঘ্র ক্ষমতা কর্নেল গাদ্দাফির বিরোধী পক্ষের হাতে আসবে. তিনি উল্লেখ করেছেন যে, এই পরিস্থিতি আগও হতে পারত, কিন্তু এটাকে বাধা দেওয়া হয়েছিল, তার মধ্যে ন্যাটো জোটের কাজ কর্মও পড়ে, যারা রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্ত অতিক্রম করেছে.