প্রায় ৩৬ কোটি ডলার তালিবরা হস্তগত করেছ্, যে অর্থ মার্কিন-যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানের উন্নয়ন খাতে পাঠিয়েছিল. এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন ডেভিড পেট্রাস, যিনি ইতিপূর্বে আফগানিস্তানে ন্যাটো জোটের এবং মার্কিন-যুক্তরাষ্ট্রের সেনানায়কের পদে আসীন ছিলেন.  অর্থ চুরি হওয়ার কারন হিসাবে আফগানিস্তানে ব্যাপকমাত্রায় দূর্নীতি বলে মনে করা হচ্ছে.  যে কোনো মালবহন সুরক্ষিত করার জন্য মার্কিনী সেনারা স্থানীয় অধিবাসীদের সাথে বন্দোবস্তো করতে বাধ্য ছিল. যদি তারা আফগান সেনাপ্রধানদের যানবাহনের সুরক্ষার কাজে নিয়োগ না করতেন, তাহলেই তা চরমপন্থীদের আক্রমণের শিকার হতো.  তদন্ত কমিটি উল্লেখ করছে, যে রক্ষীরা সর্ব্বদা ন্যাটো জোট ও মার্কিন-যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থে কাজ করলেও, নিজেদের স্বার্থে মাঝেমধ্যে তালিবদের ঘুষ দিত. তদন্ত শুরু হয় ২০১০ সালে.