প্রসিকিউটার দপ্তরের প্রতিনিধি ক্রিস্টিয়ান হাটলো জানিয়েছেন, যে ৪০ ঘন্টা ধরে জেরা করার পরে তদন্তকারীরা এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন, যে ৭৭ জনকে খুন করার অভিযোগে অভিযুক্ত এ্যানডার্স ব্রেইউইকের অন্য কোনো সাকরেদ ছিলনা. তিনি জানিয়েছেন, যে সরাসরি মিথ্যাকথা বলার ফাঁদে তাকে ফেলা যায়নি. সে একাই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে – এটা সত্যিকথা. ২২শে জুলাই ব্রেইউইক প্রথমে অসলোর কেন্দ্রে বোমাবর্ষণ করে, আর তারপর উটোইয়া দ্বীপে গুলি চালিয়ে যুবশিবিরের অংশগ্রহণকারীদের হত্যা করে. আসামী চরম জাতীয়তাবাদী. কোনো কোনো বিশেষজ্ঞের মতে ব্রেইউইক মনোরোগাক্রান্ত. নভেম্বরের মধ্যে তার মনোরোগ বিশ্লেষণ করা হবে বলে জানানো হয়েছে.