১৬ই আগষ্ট শুরু হতে যাওয়া মস্কো উপকণ্ঠের ঝুকভস্কি বিমান মহাকাশ প্রদর্শনী ম্যাক্স – ২০১১ থেকে রাশিয়ার বৃহত্তম বিমান ভাড়া দেওয়ার কোম্পানী "ইলিউশিন ফাইনান্স" নতুন বায়নার অপেক্ষা করছে.

আজ রাশিয়ার বিমান পরিষেবা কোম্পানী গুলি সবচেয়ে বেশী "ইলিউশিন ফাইনান্স কোম্পানীর" প্রস্তাবের মত পরিষেবার প্রয়োজন বোধ করছে. শুধু স্বল্প সংখ্যক অতিকায় কোম্পানীই সরাসরি উত্পাদকের কাছ থেকে নতুন যাত্রী বাহী বিমান ক্রয় করার মতো ক্ষমতা রাখে. বর্তমানে বিমান ভাড়াতে দেওয়া  - সবচেয়ে বেশী প্রসারিত কাজের ধারা, এই কথা উল্লেখ করে এই কোম্পানীর প্রতিনিধি আন্দ্রেই লিপোভেতস্কি বলেছেন:

"আমরা বিমান প্রযুক্তি কিনে থাকি, তারপর সেই গুলি হয় ভাড়া পরবর্তী কেনা অথবা শুধু ব্যবহার করার জন্য দিয়ে থাকি. তাছাড়া, কোম্পানী যেমন বিক্রী করার আগে বিমান গুলির যান্ত্রিক ব্যবস্থার পরিষেবা দিয়ে থাকে, তেমনই ভাড়া নেওয়ার পরেও তা করে থাকে. বিমান পরিষেবা কোম্পানী গুলি এই ভাবেই বিমান নিতে তৈরী ও আগ্রহী কারণ বিশাল দামের জন্য সরাসরি বিমান কিনতে পারে খুব কম কোম্পানীই. তাই ভাড়া দেওয়ার ব্যবস্থা বিশ্বের সবার কাছেই গ্রহণ যোগ্য ও এটা কোম্পানীদের জন্যও আগ্রহের বিষয়".

ম্যাক্স প্রদর্শনীতে "ইলিউশিন ফাইনান্স কোম্পানী" এই প্রথমবার অংশ নিচ্ছে না – এখানে বিমান বিক্রী করার বাজার বসে, যা পরবর্তী কালে দীর্ঘ সময় ধরে ভাড়া দেওয়ার জন্য সাধারণতঃ কেনা হয়ে থাকে. এই প্রদর্শনীতে কোম্পানীর বিশেষজ্ঞদের কাছে অন্যান্য আগ্রহের বিষয় গুলির মধ্যে রয়েছে "সুখই সুপারজেট – ১০০". আর যদি উত্পাদক তাদের আগ্রহ প্রকাশ করে "ইলিউশিন ফাইনান্স কোম্পানীর" সঙ্গে কাজ করার, তবে এটা একটা নির্দিষ্ট ফলের দিকে নিয়ে যেতেই পারে, এই কথা উল্লেখ করেছেন আন্দ্রেই লিপোভেতস্কি ও যোগ করেছেন:

"এটা একটি কেন্দ্রীয় মঞ্চ, যেখানে আমরা সম্ভাব্য গ্রাহকদের সঙ্গে সাক্ষাত্ করে থাকি – বিমান পরিবহন কোম্পানী ও বিমান উত্পাদক কোম্পানী, ভবিষ্যতের পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করে থাকি, বিমান ক্রয় বা সরবরাহের চুক্তি করে থাকি".

এই কোম্পানীর ইতিমধ্যেই কিউবা, ভেনেজুয়েলা, বোলিভিয়া ও অন্যান্য দেশের বিমান পরিবহন কোম্পানীর সঙ্গে প্রায় তিরিশটি বিমান সরবরাহ করার চুক্তি রয়েছে. প্রধান যে বিমান গুলি কোম্পানী বর্তমানে বাজারে পেশ করেছে তা হল আন – ১৪৮ ও আন – ১৫৮. এই ধরনের বিমান যথেষ্ট দুর পাল্লার ও একই ভাবে যেমন বাঁধানো বিমান বন্দরে তেমনই কাঁচা মাটির রানওয়ে তে নামতে পারে. এই ধরনের বিমানই রাশিয়া প্রজাতন্ত্র এবং উন্নতিশীল দেশ গুলির বাজারে প্রয়োজন. এই বিমানের ইউরোপের সার্টিফিকেট পাওয়ার প্রয়োজন শুধু সেই ক্ষেত্রেই থাকে, যদি বিমান ইউরোপে পাঠানো হয় তবেই. লাতিন আমেরিকা, এশিয়া, আফ্রিকা, নিকট ও মধ্য এশিয়াতে তার কোন প্রয়োজন নেই. ম্যাক্স প্রদর্শনীর সঙ্গে আমরা আমাদের বড় আশা যোগ করে রেখেছি, বলে উল্লেখ করে লিপোভেতস্কি বলেছেন:

"বিদেশী উত্পাদকদের কাছ থেকে কয়েকটি বিমান কেনার কথা রয়েছে. একই সঙ্গে লাতিন আমেরিকার জন্য আন – ১৫৮ কেনার আশা করছি".

"ইলিউশিন ফাইনান্স কোম্পানী" আজ বিমান পরিবহন কোম্পানী গুলিকে ভাড়াতে বিমান সরবরাহের জন্য সবচেয়ে বড় রুশ কোম্পানী. তারা ৩০টি বিমান ভাড়াতে দিয়েছে, আরও একশ তিরিশটির বায়না পেয়েছে. বড় বিনিয়োগ কোম্পানী গুলির সঙ্গে এই কোম্পানীর ভাল যোগাযোগ রয়েছে ও আজ বিশ্বের বাজারে তারা বেরিয়েছে. ম্যাক্স – ২০১১ প্রদর্শনীর কাজের সময়ে এই কোম্পানীর কাজ আরও দ্রুত গতি সম্পন্ন হবে.