সিরিয়ায় সরকারবিরোধী প্রতিবাদী আন্দোলন দমন করার জন্য শাসকশ্রেণী যে বলপ্রয়োগ করছে, সে ব্যাপারে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ কোনো গ্রহণযোগ্য সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি. রিয়া নোভোস্তি সংবাদসংস্থা জানাচ্ছে, যে দুদিন ধরে গুপ্তদ্বার বৈঠকের পর ১৫ টি সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে মতবিরোধ ঘটেছে. জাতিসংঘে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি ভিতালি চুরকিন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, যে পাশ্চাত্যের দেশগুলি মনে করে যে দামাস্কাসের প্রশাসণ সব দোষে দোষী, আর তাই তাদের ওপর চাপ সৃস্টি করা দরকার. রাশিয়া সহ অন্যান্য দেশগুলি অন্যদিকে মনে করে, যে আশু কর্তব্য হল – বিবাদমান সবপক্ষকে সংকট অতিক্রমণের লক্ষ্যে সংলাপ শুরু করার জন্য উদ্বুদ্ধ করা. এখনো পর্যন্ত নিরাপত্তা পরিষদ কোন দলিল গৃহীত হবে, সে ব্যাপারেই কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি. সিরিয়ার হামা শহরে আজ তিনদিন ধরে ট্যাংক থেকে গোলাবর্ষন করা হচ্ছে. মানবাধিকার রক্ষাকর্মীদের তথ্য অনুযায়ী একশোরও বেশি লোক নিহত হয়েছে.