লিবিয়া জামাহিরির সরকার গ্রেট-বৃটেন থেকে লিবিয়ার কূটনীতিজ্ঞদের বিতাড়নকে বেআইনী বলে অভিহিত করেছে. ত্রিপোলিতে তাছাড়া বেনগাজির বিদ্রোহীদের জাতীয় পরিষদকে লিবিয়ার ন্যায়সঙ্গত শাসন হিসেবে স্বীকৃতি দানকেও বেআইনী বলে অভিহিত করা হয়েছে, জানিয়েছে “রয়টার” সংবাদ এজেন্সি. গ্রেট-বৃটেন বুধবার তার ভূভাগে অবস্থিত লিবিয়ার সমস্ত কূটনীতিজ্ঞকে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে. বৃটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হেগ জানান যে, লিবিয়ার রাষ্ট্রদূতকে দেশ ছেড়ে যাওয়ার জন্য তিন দিনের সময় দেওয়া হয়েছে. বৃটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নাম না জানানোর ইচ্ছা প্রকাশ করা এক উত্স জানিয়েছেন যে, লিবিয়ার বাকি কূটনীতিজ্ঞদের বেশি সময় দেওয়া হয়েছে, যদি তারা লিবিয়ার বর্তমান শাসনকে অস্বীকার করতে চায়. তাছাড়া, হেগ বুধবার জানান যে, লিবিয়ার তেল কোম্পানির ৯ কোটি ১০ লক্ষ পাউন্ড স্টার্লিংয়ের শেয়ার এবং অন্যান্য রিজার্ভ সচল করতেও প্রস্তুত, যা ব্যবহৃত হবে বিদ্রোহী জাতীয় পরিষদ এবং লিবিয়ার জনগণকে সাহায্য করার জন্য.