মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতির দপ্তরের অধিকর্তা বিল ডেইলি বলেছেন যে, বারাক ওবামার প্রশাসন রাষ্ট্রীয় ঋণের প্রশ্নে কংগ্রেসে রিপাবলিকানদের সাথে সমঝোতায় আসতে সক্ষম হবে. ডেইলি জোর দিয়ে বলেন যে, মার্কিনী অর্থনীতির ডিফল্টের বিপদ নেই. এদিকে, এর প্রাক্কালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা স্বীকার করেন যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এই প্রথম ক্রেডিট রেটিং “এ.এ.এ” মান পর্যন্ত কমতে পারে. তিনি বলেন, “ক্রেডিট কার্ড, গৃহঋণ, মোটরগাড়ি কেনার ঋণের সুদের হার তীব্রভাবে বাড়বে”. এ হল হোয়াইট হাউজ এবং কংগ্রেসের বিরোধিতার মূল্য, কারণ কংগ্রেস রাষ্ট্রীয় ঋণের সীমা ১৪.২৯৪ লক্ষ কোটি ডলার পর্যন্ত বাড়াতে অস্বীকার করছে. যদি অবস্থান ২রা আগস্ট পর্যন্ত সর্বসম্মত করা না হয়, তাহলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের টেকনিক্যাল ডিফল্টের বিপদ রয়েছে, সতর্ক করে দিয়েছে রেটিং এজেন্সিগুলি. দেশের প্রয়োজন ৫ হাজার কোটি ডলার পেনশন এবং ভেটেরানদের ভাতা দেওয়ার জন্য. এ প্রশ্ন যথাসম্ভব তাড়াতাড়ি মীমাংসার আহ্বান জানিয়েছেন এর প্রাক্কালে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের প্রধান ক্রিস্টিন লাগার্ড. তাঁর কথায়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডিফল্টে সারা পৃথিবীতে আর্থিক সঙ্কটের বিপদ রয়েছে. এর পরিণতি বিপর্যয়কর হতে পারে. কংগ্রেস নতুন ঋণের অনুমতি দিতে অস্বীকার করছে বাজেটের ঘাটতি হ্রাসের পরিকল্পনা নিয়ে মতভেদের জন্য. কংগ্রেসের প্রতিনিধি কক্ষে রিপাবলিকান সংখ্যাধিক্যের নেতা জন বোনার প্রস্তাব করছেন, বাজেটের ঘাটতি ৩ লক্ষ কোটি ডলার কমানোর এবং রাষ্ট্রীয় ঋণের সীমা ১ লক্ষ কোটি বাড়ানোর, আর ছয় মাস পরে এ সীমা আরও বাড়ানোর প্রশ্ন বিবেচনা করার. সেনেটে ডেমোক্রেটিক সংখ্যাধিক্যের নেতা হ্যারি রেইড প্রস্তাব করেছেন ঋণের সীমা ২.৭ লক্ষ কোটি ডলার বাড়ানোর এবং তত পরিমাণ অর্থ ১০ বছরে বাজেটের খরচ হ্রাস করার. বোনারের স্থিরবিশ্বাস যে, কংগ্রেস সদস্যরা তাঁর পরিকল্পনা অনুমোদন করবেন. সে ক্ষেত্রে ওবামা কংগ্রেসের সিদ্ধান্তে ভেটো দিতে পারেন, বলা হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতির প্রশাসনে.