লিবিয়ার সরকারের প্রতিনিধিরা গত শনিবার মার্কিনী পররাষ্ট্র বিভাগের কর্মীদের সাথে টিউনিসিয়ায় সাক্ষাত্ করেন. লিবিয়ার পক্ষ শান্তির উদ্দেশ্যে  আলাপ-আলোচনার জন্য প্রস্তুতির কথা সমর্থন করেছে, তবে কোনো প্রাথমিক শর্ত ছাড়া, জানিয়েছে “রয়টার” সংবাদ সংস্থা. ত্রিপোলির প্রতিনিধি মুসা ইব্রাহিম জোর দিয়ে বলেন যে, তাঁরা যে কোনো শান্তিপূর্ণ উদ্যোগ ও আলাপ-আলোচনার জন্য প্রস্তুত, যদি তা বাইরে থেকে এসে না থাকে. তাঁর কথায়, দেশের ভবিষ্যত্ লিবিয়াবাসীদের নিজেদেরই নিরূপণ করা উচিত. টেলি-কোম্পানি “সি.এন.এন” জানিয়েছে যে, পক্ষদ্বয়ের আলাপ-আলোচনা সম্পর্কে অবস্থানে মৌলিক পার্থক্য রয়েছে. ওয়াশিংটনের প্রতিনিধিদের একমাত্র লক্ষ্য ছিল সোজাসুজি এবং দ্ব্যর্থহীনভাবে ঘোষণা করা যে, গদ্দাফির সরে যাওয়া উচিত. মার্কিনী পররাষ্ট্র বিভাগের প্রতিনিধি বলেন যে, এ ছিল “একবারের সাক্ষাত্”, যার উদ্দেশ্য ছিল লিবিয়ার পক্ষকে এ সহজ ধারণাটি জানিয়ে দেওয়া.