ভারতের মুম্বাই শহরে বুধবার দুটি বিস্ফোরণের ফলে নিহতদের সংখ্যা পৌঁছেছে ২১ জনে, ১৪০ জনের উপর আহত হয়েছে, জানিয়েছে সরকারী উত্স. একটি বোমা বসানো ছিল মোটরগাড়িতে, অন্যটি – মোটরসাইকেলে. অনুমান করা হচ্ছে যে, এ অন্তর্ঘাত আয়োজন করে থাকতে পারে পাকিস্তানের চরমপন্থী “লশকর-এ তাইবা” দলের সাথে জড়িত জঙ্গীরা. দেশের কর্তৃপক্ষ রাজধানী দিল্লি এবং অন্যান্য বড় শহরে নিরাপত্তার বাড়তি ব্যবস্থা গ্রহণ করছে. এ ঘটনাটি ছিল মুম্বাইয়ে প্রথম বড় সন্ত্রাস ২০০৮ সালের নভেম্বরের পরে, যখন পাকিস্তান থেকে আসা নয়জন সন্ত্রাসবাদী দলে বিভক্ত হয়ে রাস্তায়, কাফে-তে, রেলস্টেশনে লোকেদের গুলি করে, আর তারপর একটি পাঁচ-তারা হোটেলে ঘাঁটি গেড়ে দুদিন ধরে বিশেষ সৈনিকদের প্রতিরোধ করেছিল. সে সময়ে নিহত হয়েছিল ১৬৬ জন.