সিরিয়ার কর্তৃপক্ষের দ্বারা সরকারবিরোধী আন্দোলনের ক্রমাগত কঠোর দমন বাশার আসদের শাসনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সিদ্ধান্তে রাশিয়ার স্থিতি পরিবর্তন করতে পারে. এ সম্বন্ধে বলেছেন ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলেন ঝুপ্পে. তিনি গত সপ্তাহে মস্কোয় রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভের সাথে এ বিষয়ে আলাপ-আলোচনা করেছেন. আগে রাশিয়া রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের খসড়া সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মত প্রকাশ করে, যাতে প্রতিবাদ দমনের জন্য আসদের শাসন ব্যবস্থার নিন্দে করা হয়েছে. ক্রেমলিন ভয় পাচ্ছে সিরিয়ায় লিবিয়ার সামরিক হস্তক্ষেপের চিত্রনাট্যের পুনরাবৃত্তির. মস্কোয় ঝুপ্পে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরোভকে সিরিয়া সংক্রান্ত সিদ্ধান্তে নিজের স্থিতি বদলানোর জন্য বোঝাতে চেষ্টা করেন. ফরাসী মন্ত্রীর কথায়, মস্কো এখনও এ সিদ্ধান্ত নিয়ে ভোটদানের সময় নিজের ভেটোর অধিকার খাটানোর ভয় দেখাচ্ছে. তিনি বলেন, “তবুও, রাশিয়া নিজেকে প্রশ্ন করতে শুরু করছে, কারণ রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের নিষ্ক্রিয়তার জন্য সেও নির্দিষ্ট মাত্রায় দায়িত্বশীল”. রাশিয়া ও চীন রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণে তারা ভেটোর অধিকার খাটাতে পারে. ফ্রান্স এখনও পর্যন্ত সিরিয়া সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণে ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা প্রজাতন্ত্র ও ব্রেজিলকে বোঝাতে পারে নি.