0ইস্রাইল স্থলভাগ হয়ে “মুক্তির নৌবহর-২” থেকে মানবতাবাদী সাহায্যের মালপত্র গাজা অঞ্চলে পাঠাতে সম্মত. গ্রীসের দ্বারা প্রস্তাবিত পরিকল্পনা অনুযায়ী, এ মালপত্র পাঠানো দরকার মিশরের কোনো একটি বন্দরে, আর সেখান থেকে গাজায় নিয়ে যাওয়া হবে স্থলভাগীয় সীমান্ত-চৌকি হয়ে. এদিকে, “মুক্তির নৌবহর-২”-এর ফরাসী জাহাজ Dignite Al-Karama গ্রীস থেকে অবরুদ্ধ গাজা এলাকার দিকে রওনা হয়েছে. এ জাহাজটি হল একমাত্র, যা গ্রীসের সীমানা এড়িয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে. বাকি জাহাজগুলিকে গ্রীসের সামুদ্রিক কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন বন্দরে আটক রেখেছে নানা অজুহাতে. ইস্রাইল সতর্ক করে দিয়েছে যে, গাজা অঞ্চলের অবরোধ ভাঙতে দেবে না. গত বছরে ইস্রাইল গাজা অঞ্চলের উপকূলের কাছে আটক করেছিল প্রথম “মুক্তির নৌবহর”,  যে জাহাজের সারিতে ছিল গাজা অঞ্চলের জন্য সাহায্যের জিনিসপত্র. সে সময়ে মারা গিয়েছিল ৯ জন.