মিশরের বিপ্লবী যুব সম্প্রদায় শুক্রবার কায়রোর কেন্দ্রস্থলে তহরীর স্কোয়ারে নতুন প্রতিবাদ আন্দোলন আয়োজন করতে চায়. তথাকথিত “প্রতিশোধের শুক্রবার” কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে জানুয়ারী বিপ্লবের সময়ের সমস্ত দাবি পুরণ অর্জনের জন্য নির্দেশিত. তাছাড়া, “প্রতিশোধের শুক্রবারের” উদ্যোক্তারা কায়রোর নিরাপত্তা বাহিনীর নেতা এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বিভাগের অধিকর্তার পদত্যাগ এবং তাদের বিচারের দাবি করছে. তারা মনে করে এই আমলারা ২৯শে জুন রাতে তহরীর স্কোয়ারে বিশৃঙ্খলার সাথে জড়িত ছিল. গত মঙ্গলবার রাত থেকে তহরীর স্কোয়ারে যুব সম্প্রদায় ও পুলিশ বাহিনীর মাঝে সঙ্ঘর্ষ চলে. এ বিশৃঙ্খলার সময় আহত হয়েছে এক হাজার জনের উপর, তাদের মধ্যে ১৬ জন এখনও শহরের হাসপাতালে রয়েছে. প্রাথমিক তদন্তের তথ্য অনুযায়ী, ব্যাপক বিশৃঙ্খলার কারণ ছিল প্ররোচনা. অজানা ব্যক্তিরা এ গুজব রটায় যে, ২৫শে জানুয়ারীর বিদ্রোহে নিহতদের মায়েদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মীরা গ্রেপ্তার করেছে.