ইয়েমেনের রাষ্ট্রপতি আলি আব্দাল্লা সালেহের দেশে ফেরার সময় এখনও পর্যন্ত জানা নেই. এ সম্বন্ধে “সি.এন.এন” টেলিকোম্পানিকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন ইয়েমেনের উপ-রাষ্ট্রপতি মানসুর অল-হাদি. বর্তমানে, সালেহ-কে হত্যার প্রচেষ্টার পরে, তিনি সৌদি আরবে চিকিত্সাধীন রয়েছেন. অল-হাদির কথায়, রাষ্ট্রনেতার, আগের মতোই, প্রখর চিকিত্সা সাহায্য প্রয়োজন. তিনি বলেন, “তা হতে পারে কয়েক দিনের, সপ্তাহের অথবা কয়েক মাসের ব্যাপার”. রাষ্ট্রপতির দেশে ফেরার সময় নির্ভর করছে চিকিত্সকদের সিদ্ধান্তের উপর, যোগ করে বলেন তিনি. সালেহ-র তাড়াতাড়ি ফেরার প্রতিশ্রুতি সত্ত্বেও বিরোধীপক্ষ বিজয় উত্সব পালন করছে, তাঁকে হিসেব থেকে সম্পূর্ণভাবে বাদ দিয়ে. সানায় বিরোধীপক্ষ ইতিমধ্যে রাজনৈতিক মীমাংসার প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে, উপ-রাষ্ট্রপতির সাথে আলাপ-আলোচনা শুরু করে. এর প্রাক্কালে ইয়েমেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে সালেহ-র বার্তা প্রচার করেছেন. রাষ্ট্রপতি কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানিয়েছেন বিরোধীপক্ষের সাথে সংলাপ চালাতে এবং শান্তিপূর্ণ মীমাংসার পরিকল্পনা পুরণ করতে, যা প্রণয়ন করা হয়েছিল পারস্য উপসাগরের আরব রাষ্ট্রগুলির সহযোগিতা পরিষদের মধ্যস্থতায়.