0ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যে বিগত ২১ বছরে সশস্ত্র বিরোধিতায় নিহত হয়েছে প্রায় ৪৩.৫ হাজার জন. এ সম্বন্ধে বলা হয়েছে স্থানীয় প্রশাসনের সম্মিলিত তথ্যে, যা জানিয়েছে “টাইমস অফ ইন্ডিয়া” পত্রিকা. ১৯৯০ সালে ভারতীয় প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে থাকা কাশ্মীরের ভূভাগে তত্পর হয়ে ওঠে জঙ্গীরা, যারা ভারত থেকে এ অঞ্চলকে বিচ্ছিন্ন করতে চাইছে. তাদের সক্রিয়তার ফলে হিংসা বাড়তে থাকে. বিগত কয়েক বছরে সঙ্ঘর্ষ কমে আসছে. ভারতীয় পক্ষের মতে, তা পাকিস্তানের কর্তৃপক্ষের জন্য কাশ্মীর সমস্যা গৌন স্থানে সরে যাওয়ার সাথে জড়িত. রাশিয়ার “রিয়া নোভস্তি” সংবাদ সংস্থাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে দিল্লির সঙ্ঘর্ষ অধ্যয়ন ইনস্টিটিউটের ম্যানেজিং ডিরেক্টর শ্রী অজয় সাহনী বলেন, “কাশ্মীরে পরিস্থিতির যথেষ্ট উন্নতি ঘটেছে, এবং জঙ্গীরা সংগ্রামের নতুন স্ট্র্যাটেজির অনুসন্ধান শুরু করেছে, কারণ পুরনো স্ট্র্যাটেজি আকাঙ্ক্ষিত ফল দিচ্ছে না. কাশ্মীরে হিংসা সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করছে পাকিস্তানের উপর”. তিনি বলেন, “যদিও জম্মু ও কাশ্মীর মুক্তি ফ্রন্টের মতো সংস্থায় বেশির ভাগ কর্মী ভারতীয়, তারা নিয়মিত পাকিস্তান থেকে সাহায্য ও সমর্থন পেয়ে এসেছে. বর্তমানে ইস্লামাবাদ বেশি ব্যস্ত রয়েছে আফগান-পাক সীমানায় সমস্যা নিয়ে, এবং কাশ্মীরের দিকে নিজের ক্রিয়াকলাপ কমিয়ে এনেছে”.