রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ এ সম্ভাবনা অস্বীকার করেছেন যে, তিনি এবং রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন উভয়েই ২০১২ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে নিজেদের নাম পেশ করবেন. পিতারবুর্গ অর্থনৈতিক সম্মেলনের ফলাফল সম্পর্কে “ফাইনানশিয়াল টাইমস” পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে তিনি এ সম্বন্ধে বলেছেন. তাছাড়া তিনি পুতিনের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা বৃদ্ধি সম্বন্ধে বিবৃতিও খন্ডন করেন. রাষ্ট্রপতির কথায়, তিনি ও পুতিন “ভিন্ন ভিন্ন ব্যক্তি”, কোনো লক্ষ্য কিভাবে সাধন করা যায় সে সম্পর্কে তাঁদের ধারণাও ভিন্ন ভিন্ন. তবে তাঁরা একই রাজনৈতিক শক্তির প্রতিনিধিত্ব করছেন, জোর দিয়ে বলেন মেদভেদেভ. তিনি বলেন, “আমাদের মাঝে মতভেদ গভীর হয়ে উঠছে এ কথা ভাবা একেবারেই ঠিক নয়”. তিনি আবার উল্লেখ করেন যে, ক্ষমতাসীন জুটির মাঝে বিভাজনের সম্ভাবনা খুবই কম, কারণ তা রাশিয়ার জন্য বিকাশের শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্য হবে না. প্রতিদ্বন্দ্বিতা সেই সব লক্ষ্যের সাধন ক্ষুণ্ণ করতে পারে, যা রাশিয়ার সামনে উথ্থাপিত হয়েছে. এই “ফাইনানশিয়াল টাইমস” পত্রিকাকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে মেদভেদেভ প্রতিশ্রুতি দেন যে শিগগিরই তিনি ঘোষণা করবেন ২০১২ সালে রাষ্ট্রপতি পদের জন্য নির্বাচনে দাঁড়াবেন কি না. রাশিয়ার সংবিধানে গৃহীত সংশোধন অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতি পদে পরবর্তী মেয়াদ হবে ছয় বছরের. মেদভেদেভের কথায়, “যে কোনো রাজনীতিজ্ঞের রাষ্ট্রপতি পদের জন্য নির্বাচনে অংশ নেবার ইচ্ছে থাকতে বাধ্য”. তবে নতুন মেয়াদের জন্য তিনিই নির্বাচনে দাঁড়াবেন কি না এ হল অন্য প্রশ্ন, বলেন মেদভেদেভ. ইন্টারভিউতে রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি পদের জন্য নির্বাচনে বারাক ওবামার বিজয়ের কামনা জানান. মেদভেদেভের মতে, রুশ-মার্কিন সম্পর্কে যে উন্নতি ঘটেছে, তাতে মুখ্য অবদান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রশাসন এবং ব্যক্তিগতভাবে রাষ্ট্রপতি ওবামার. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি বলেন যে, ওবামার বিজয় মস্কো ও ওয়াশিংটনের মাঝে সম্পর্ক সুদৃঢ় করতে সাহায্য করবে.