পিটার্সবার্গে অর্থনৈতিক ফোরাম জোর কদমে চলছে ইন্টারনেট আর শুধুমাত্র যোগাযোগ মাধ্যমই নয়, তা সবচেয়ে বলিষ্ঠ রাজনৈতিক নির্ণায়কে পরিণত হয়েছে. যারা এই বাস্তবতাকে অগ্রাহ্য করে, তাদের আধুনিক জীবন সম্পর্কে কোনো ধারণাই নেই. ইন্টারনেটের ভাবী বিকাশের সম্ভাব্য অভিমুখ নিয়ে আলোচনা সভা চলাকালীন এই মন্তব্য করেন দমিত্রি মেদভেদেভ. ইন্টারনেটের ভবিষ্যত সেন্ট-পিটার্সবার্গে চলতি আনর্জাতিক অর্থনৈতিক সম্মেলনে অন্যতম আলোচ্য বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে.      সাম্প্রতিক কালে কোনো বড়মাপের আলোচনা সভাই ইন্টারনেটের চৌহদ্দীর ঘটনাবলী নিয়ে মতবিনিময় ছাড়া চলেনা. মেদভেদেভ স্মরণ করিয়ে দেন, যে ফ্রান্সের দোভিলে G-8 এর শীর্ষবৈঠকে প্রথমবার এই বিষয়টি আলাপ আলোচনার অংশ হয়ে দাঁড়ায় এবং সেটা যুক্তিযুক্ত. দমিত্রি মেদভেদেভের মতে, ইন্টারনেট নিজেই বদলাচ্ছে শুধু তাই নয়, তা জীবনের নিয়মকানুনের ওপরও প্রভাব বিস্তার করে.      Google Corporation এর শীর্ষকর্তা Eric Shmidt আমাদের বেতারকেন্দ্রকে দেওয়া একান্ত ইন্টারভ্যিউয়ে উল্লেখ করেন, যে টেলি কম্যুনিকেশন ও ডিজিটাল প্রযুক্তির খাতে অর্থ বিনিয়োগ হল- আমাদের দেশে মানবিক পুঁজি উন্নয়নের মুলমন্ত্র, এবং তাঁর মতে এই অভিমুখে দ্রুত উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় সঙ্গতি ও সম্ভাবনা রাশিয়ার কাছে আছে.      তবে পাশ্চাত্যের অভিজ্ঞতার অন্ধ অনুকরণ করা রাশিয়ার উচিত হবেনা- আমাদের বেতারকেন্দ্রকে দেওয়া ইন্টারভ্যিউয়ে এ কথা ঘোষণা করেছেন যোগাযোগ ও টেলিকম্যুনিকেশন দপ্তরের মণ্ত্রী ইগর শেগোলেভ. বিভিন্ন অঞ্চলের আপন আপন বিশেষত্ব, তাদের আলাদা আলাদা অগ্রগতির হার এবং আমাদের দেশের বিশাল ভৌগলিক আয়তনের কথা মাথায় রেখেই এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকারকে সবচেয়ে বড় ভুমিকা নিতে হচ্ছে. শেগোলেভ আরও বলেনঃ ‘আমরা যেমন স্যাটেলাইট ইন্টারনেট প্রকল্পের বিকাশ ঘটাচ্ছি. অবশ্যই স্যাটেলাইট ইন্টারনেটের মাধ্যমে অপটিকের মতো দ্রুত গতি লাভ করা সম্ভব নয়, কিন্তু এর দৌলতে সীমিত অর্থব্যয় করে সুবিশাল এলাকায় ইন্টারনেটের প্রসার ঘটানো সম্ভব’. অর্থনৈতিক সম্মেলনে আলোচনার অন্যতম গুরুত্বপুর্ণ বিষয় ছিল রাষ্ট্রপতি মেদভেদেভ উত্থাপিত রাশিয়ায় বড় মাপে শিল্প ও সম্পদ ব্যক্তিমালিকানার হাতে তুলে দেওয়ার প্রকল্প. এই প্রকল্প রূপায়নের সুবাদে রাশিয়ার শেয়ার বাজারের টার্ণওভার বাড়া উচিত এবং তা মস্কোয় আন্তর্জাতিক আর্থিক কেন্দ্র স্থাপণের অপরিহার্যতাকে আরও জোরালো করে তুলবে- বলছেন রাশিয়ার স্টক এক্সচেঞ্জের অধিকর্তা রুবেন আগানবেগিয়ান.