রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ কাজাখস্তানের রাজদানী আস্তানায় পৌঁছেছেন, সেখানে তিনি শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার জয়ন্তী শীর্ষ সাক্ষাতে অংশগ্রহণ করবেন. পরিকল্পনা আছে যে, শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার দশম বার্ষিকীর প্রতি উত্সর্গীত রাষ্ট্রনেতাদের সাক্ষাত্ শুরু হবে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উত্সবের অনুষ্ঠান এবং সমারোহপূর্ণ ভোজসভা থেকে. বুধবার, ১৫ই জুন শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার রাষ্ট্রনেতাদের পরিষদের সরকারী বৈঠক পরিকল্পিত. প্রথমে তা অনুষ্ঠিত হবে সঙ্কীর্ণ বিন্যাসে, আর তারপর তাঁদের সঙ্গে যোগ দেবেন পর্যবেক্ষক রাষ্ট্র – ভারত, ইরান, মঙ্গোলিয়া ও পাকিস্তানের প্রতিনিধিদলগুলির নেতারা. কাজাখস্তানের সভাপতিত্বে অতিথি হিসেবে আস্তানায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি হামিদ কার্জাই এবং তুর্কমেনিস্তানের রাষ্ট্রপতি গুর্বানগুলি বের্দিমুহামেদোভকে. রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির সহকারী সের্গেই প্রিখোদকো সাংবাদিকদের আগে জানিয়েছিলেন যে, শীর্ষ সাক্ষাতের অংশগ্রহণকারীরা আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক সমস্যাবলি সম্পর্কে মত-বিনিময় করবেন. বিশেষ করে, আলোচিত হবে নিকট প্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার দেশগুলির এবং আফগানিস্তানকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি. তাছাড়া, শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার কাঠামোতে অর্থনৈতিক পারস্পরিক ক্রিয়াকলাপের সম্ভাব্য ধারা সম্বন্ধেও কথা হবে. শীর্ষ সাক্ষাতের ফলাফলের ভিত্তিতে একসারি দলিল গৃহীত হবে, বিশেষ করে, আস্তানা ঘোষণাপত্র এবং ২০১৬ সাল পর্যন্ত শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার নার্কোটিক-বিরোধী স্ট্র্যাটেজি. আস্তানায় এ শীর্ষ সাক্ষাতের সময় রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির একসারি দ্বিপাক্ষিক সাক্ষাতেরও সম্ভাবনা আছে. বিশেষ করে, পরিকল্পিত আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতির সাথে তাঁর আলাপ. তাছাড়া, ইরানের রাষ্ট্রপতি মাহমুদ আহমাদিনেজাদের সাথেও মেদভেদেভের সাক্ষাত্ বাদ দেওয়া যায় না.