জাপানের কর্তৃপক্ষ নিজের পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রগুলির জন্য সুনামীর বিপদের সঠিক মূল্যায়ন করতে পারে নি. এ সম্বন্ধে বলা হয়েছে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সির বিশেষজ্ঞদের রিপোর্টে, যারা জাপানে বিশেষ সফরে পৌঁছেছেন. জাপানের “ফুকুসিমা-১” পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রের ঘটনা দেখিয়েছে যে, দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে জরুরী পরিস্থিতিতে প্রতিক্রিয়ার কেন্দ্রগুলির তত্পরতা বাড়ানো প্রয়োজন. দলিলে বলা হয়েছে, পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রের স্রষ্টাদের ভবিষ্যতে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সমস্ত সম্ভাবনা বিবেচনা করে বিদ্যুত্ কেন্দ্রের নিরাপত্তা বাড়ানো উচিত্. পুরো রিপোর্ট প্রকাশিত হবে ভিয়েনায় ২০-২৪শে জুন আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সির আন্তর্জাতিক সম্মেলনে. ১১ই মার্চ জাপানে ধ্বংসাত্মক ভূমিকম্প ও সুনামীর পর দেশের উত্তর-পুবে অবস্থিত “ফুকুসিমা-১” পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রে একসারি দুর্ঘটনা হয়, যার ফলে রিয়াক্টর ঠান্ডা করার ব্যবস্থা অচল হয়ে পড়ে. তার দরুণ এ কেন্দ্রে তেজষ্ক্রিয়তার নিষ্ক্রমণ ঘটে.