কাজাকিস্তানের আলমা-আতায় শুরু হওয়া সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে আফগানিস্তান পরিস্থিতি ও সন্ত্রাসবিরোধী সংঘবদ্ধ সংগ্রাম যা প্রধান আলোচ্য বিষয়ে স্থান পেয়েছে।সাংহাই সহযোগিতা সংস্থাভুক্ত দেশসমূহের পারষ্পরিক বিনিময়ের অন্যতম উল্লেখযোগ্য কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আফগানিস্তান থেকে মাদক চোরাচালন বন্ধ করা।আফগানিস্তান থেকে মাদকদ্রব্য যা অবৈধ পথে তাজিকিস্তান হয়ে রাশিয়াসহ ইউরোপের বাজারে প্রবেশ করে।দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে মন্ত্রীরা সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রমের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করবেন।এরমধ্যে রয়েছে তথ্যের বিনিময়,চৌকস বাহিনী গঠন এবং সহযোগি সামরিক মহড়ার আয়োজন।আজকের বৈঠকে গৃহিত সিদ্ধান্তসমূহ সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার শীর্ষ নেতাদের বৈঠকে স্বাক্ষরিত হবে যা আগামী ১৫ জুন কাজাকিস্তানের রাজধানী আস্তানায় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।উল্লেখ্য,চীন, রাশিয়া, কাজাকিস্তান, কিরগিজস্তান,তাজিকিস্তান ও উজবেকিস্তানকে নিয়ে ২০০১ সালে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থা গঠিত হয়েছে।