রাশিয়ায় পালিত হচ্ছে ফ্যাসিবাদ বিরোধী যুদ্ধ বিজয়ের ৬৬তম বার্ষিকী। মানব জাতির ইতিহাসে ভয়াবহ ঐ যুদ্ধে(১৯৪১-১৯৪৫)সোভিয়েত ইউনিয়নের সৈন্যরা জার্মানি ও এর যৌথমিত্র বাহিনীর  ৬০০-এরও বেশী স্থাপনা ধ্বংস করে। ১৯৪১ সালে হিটলারের পরিচালিত বাহিনী সোভিয়েত ইউনিয়ন দখল করার যে প্রচেষ্টা চালিয়েছিল তা মস্কোর উপকন্ঠে সংঘঠিত যুদ্ধে পন্ড হয়ে যায়। সোভিয়েত সৈন্যরা স্টালিনগ্রাদ থেকে বার্লিন পর্যন্ত পুরোটাই নিজেদের কর্তৃত্বে নিয়ে আসে এবং ফ্যাসিবাদীদের দখল থেকে ইউরোপের অর্ধেকটাই মুক্ত করতে সক্ষম হয়। জার্মানি ৮ মে রাত ১০ টা ৪৩ মিনিটে(সেন্ট্রাল ইউরোপীয় সময়)এবং (মস্কে সময় অনুসারে ৯ মে রাত ১২ টা ৪৩ মিনিট) যুদ্ধে আত্বসমর্পন জানিয়ে একটি যুক্তি সাক্ষর করে।  এ কারণেই ইউরোপে ২য় বিশ্বযুদ্ধ সমাপ্তি দিবস পালিত হয় ৮ মে। সামরিক কুঁচকাওয়াজ ,মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে সাক্ষাত,বিজয় উত্সব ও নিহত বীরদের স্মৃতি সৌধে সম্মান জানানোর মধ্য দিয়ে রাশিয়ায় বিজয় দিবস পালিত হয়। বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ টুইটারে সবাইকে বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।