ওসামা বিন লাদেন তার মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত আল-কায়দার  সবধরনের কার্যক্রম তদারকি করতেন।যুক্তরাষ্ট্রের পেন্টাগনের গোয়েন্দা বিভাগ এই মন্তব্য করেছেন।তাদের ভাষায়, লাদেনের বাড়ী থেকে প্রাপ্ত বিভিন্ন উপাত্ত যা গূরুত্বপূর্ণ তথ্যেরই উত্স বহন করছে।কোন নির্দিষ্ট ব্যক্তির বিপক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের পরিচালিত অভিযানে এক সাথে বিপুল আর্কাইভ তথ্যের সন্ধান পাওয়ার নজির এবারই প্রথম।গোয়েন্দা বিভাগের কর্মকর্তাদের মতে,ওই বাড়িটি ছিল আল-কায়েদার শীর্ষ নেতার একটি সক্রিয় কমান্ড ও নিয়ন্ত্রণকেন্দ্র।উল্লেখ্য, গত ২ মে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদ শহরের একটি বাড়ীতে ওসামা বিন লাদেনকে হত্যা করা হয় ।