পারমাণবিক অস্ত্র নিরাপত্তার শুধু মোহই সৃষ্টি করে, আর জাতিসমূহের তা বোঝা দরকার. এ মত প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক বান কি মুন. তিনি বলেন, “এমন অস্ত্রের অধিকারী হওয়া – বিরাট দায়িত্ব. বড় বড় দুর্ঘটনা ও বিপর্যয়ের ঝুঁকি অতি বিপুল”. বান কি মুন আরও উল্লেখ করেন যে, “সমস্ত পর্যায়ে পারমাণবিক নিরাপত্তার প্রশ্নপুনর্বিবেচনা করা উচিত্ এবং আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সির ভূমিকা বৃদ্ধি করা উচিত”. তাঁর কথায়, আগামী ২০ বছরে বিকাশের প্রাধান্যমূলক ধারা হওয়া উচিত্ দৈন্যের বিরুদ্ধে এবং পৃথিবীতে পারমাণবিক বিপদ মুক্ত শান্তি স্থাপনের জন্য সংগ্রাম.