লিবিয়ার উপরে আঘাত, যার ফলে দেশের নেতা মুয়াম্মর গাদ্দদাফির ছেলে এবং তিন নাতি-নাতনী নিহত হয়েছে, হানা হয়েছে রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের সিদ্ধান্তের কাঠামোতে. এ সম্বন্ধে সোমবার বলেছেন হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি জে কার্নি. তিনি উল্লেখ করেন যে, এ ঘটনাকে জামাহিরির খাস নেতার জন্য এক স্বকীয় ধরণের সঙ্কেত হিসেবে বিবেচনা করা যেতে পারে. ন্যাটো জোটের বাহিনী পয়লা মে রাতে ত্রিপোলিতে সরকারী ভবনের উপর বিমান আঘাত হেনেছিল. সেখানে অবস্থিত গাদ্দাফির আত্মীয়দের মৃত্যুর খবর পেয়ে লিবিয়ার নেতার পক্ষ সমর্থকরা গ্রেট-বৃটেন ও ইতালির কূটনৈতিক মিশনের ভবন এবং রাষ্ট্রসঙ্ঘের প্রতিনিধি দপ্তরের ভবন ছত্রভঙ্গ করে.