সন্ত্রাসবাদী “আল-কাইদা” দলের নেতা উসামা বিন লাদেনকে ধ্বংস করা পাকিস্তানী কর্তৃপক্ষের সাহায্য ছাড়া সম্ভব হত না, বলেছেন এ দেশের রাষ্ট্রপতি আসিফ আলি জারদারী. মার্কিনী “ওয়াশিংটন পোস্ট” পত্রিকায় প্রকাশিত প্রবন্ধে তিনি লিখেছেন, “যদিও রবিবারের ঘটনাবলি মিলিত মার্কিনী-পাক অভিযানের ফল নয়, তবুও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও পাকিস্তানের কয়েক দশকের সহযোগিতা ছাড়া উসামা বিন লাদেনকে ধ্বংস করা সম্ভব হত না”. জারদারী আরও স্বীকার করেন যে, পাকিস্তানের আব্বোত্তাবাদ শহরে বিন লাদেনকে আবিষ্কার ইস্লামাবাদের জন্য অপ্রত্যাশিত ব্যাপার ছিল. পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি বলেন, “সে লুকিয়ে ছিল না এমন একটি জায়গাতেও, যা আমাদের অনুমান মতো সে বেছে নিতে পারত”. তিনি উল্লেখ করেন যে, তাঁর দেশ বহু বছর ধরে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে অগ্র-ভূমিকা পালন করছে. রাষ্ট্রপতি জোর দিয়ে বলেন, “সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করছি বলে আমাদের বিপুল মূল্য দিতে হয়েছে. ন্যাটো জোটের দেশগুলি একত্রে মিলে যত সৈনিক হারিয়েছে আমরা তার চেয়ে বেশি সৈনিক হারিয়েছি. আমরা তাছাড়া ৩ হাজার পুলিশ-কর্মী এবং প্রায় ৩০ হাজার শান্তিপূর্ণ বাসিন্দাকে হারিয়েছি”.