ইয়েমেনের রাষ্ট্রপতি আলি আব্দাল্লা সালেহ অবসর গ্রহণ করবেন দেশে নির্বাচন হওয়ার পরেই. পশ্চিমী দেশগুলি জোর দিচ্ছে তিনি যেন এখনই পদত্যাগ করেন, তবে ইয়েমেনের নেতার স্থিরবিশ্বাস যে, শাসন ক্ষমতা হস্তান্তর করা উচিত্ শুধু নির্বাচন এবং গণভোটের ভিত্তিতে. সালেহ দেশে আন্তর্জাতিক পরিদর্শকদের আমন্ত্রণ করার প্রস্তুতি প্রকাশ করেছেন, যারা নির্বাচনের স্বচ্ছতা ও ন্যায্যতা সমর্থন করবে. ইতিমধ্যে দু মাসের উপর ইয়েমেনে বিশৃঙ্খলা চলছে. প্রতিদিন শহরে শহরে মিছিলকারীরা দেশের নেতৃবৃন্দের পদত্যাগের দাবিতে স্লোগান তুলছে. ৩০ বছরের উপর শাসন ক্ষমতায় থাকা রাষ্ট্রপতি ছাড় দিতে রাজি হন, এবং এ বছর শেষ হওয়ার আগে পার্লামেন্ট ও রাষ্ট্রপতির প্রাকমেয়াদী নির্বাচন আয়োজন করার প্রস্তাব করেন.