অ্যাপল কর্পোরেশনকে আবার আই ফোন ও আই প্যাড স্লেট কম্পিউটার ব্যবহারকারী লোকেদের ব্যক্তি স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করার কারণে অভিযুক্ত করা হয়েছে. ব্রিটেনের বিশেষজ্ঞরা বুঝে গিয়েছেন যে, এই ধরনের যন্ত্র স্মৃতিতে সেগুলির মালিকদের চলাফেরা সম্বন্ধে খুবই খুঁটিয়ে তথ্য সংগ্রহ করে ও তা জমা করে রাখে. প্রসঙ্গতঃ ব্যবহার যাঁরা করেন, তাঁরা এই ধরনের গোয়েন্দাগিরি সম্বন্ধে কোন রকম ভাবে অনুমানই করতে পারেন না.

    এই বার অ্যাপল এর নামে অভিযোগ করে গ্রেট ব্রিটেনের কম্পিউটার নিরাপত্তা বিষয়ক বিশেষজ্ঞ পিট ওয়ার্ডেন ও অ্যালিস্টার অ্যালেন বক্তব্য রেখেছেন. তাঁরা আই ফোন ও আই প্যাড  গুলির মধ্যে লুকোনো ফাইল দেখতে পেয়েছেন, যেগুলি তে প্রায় হাজার খানেক ভৌগলিক অবস্থান সংক্রান্ত তথ্য দেখতে পেয়েছেন, যেখানে এই যন্ত্র গুলির মালিকেরা গিয়েছিলেন. খুবই সহজ প্রোগ্রাম ব্যবহার করে এই ধরনের তথ্য ইন্টারনেট থেকে নিয়ে ওয়ার্ডেন ও অ্যালেন সহজেই দিনক্ষণ সমেত এই সব ব্যক্তিদের যাতায়াতের বিবরণ পেয়েছেন. এখানে লক্ষ্যনীয় শুধু এই ধরনের নথির অস্তিত্বই নয় – কারণ প্রায় সমস্ত আধুনিক ফোনই মালিকদের অবস্থান নির্ণয় করতে সক্ষম, বরং লক্ষ্যনীয় হল এই ধরনের তথ্য সংগ্রহ হয় মালিকদের অজ্ঞাতে. এই বিষয়ে গ্যারান্ট-পার্ক-টেলিকম কোম্পানীর প্রধান আইন বিশেষজ্ঞ নাদেঝদা আলজোবা মন্তব্য করে বলেছেন:

    "এই সব আধুনিক যন্ত্র ব্যবহার কারীরা এই বিষয়ে আগে থেকে কোন ভাবে জানতে পারেন নি, তাই এটা তাঁদের অধিকার খর্ব করা হয়েছে এ তাঁদের ব্যক্তিগত গোপনতার অধিকার নষ্ট হয়েছে, তার মধ্যে পছন্দ মত যাতায়াত সম্বন্ধে তথ্যকেও মনে করা হয়. কারণ এই তথ্য শুধু সরকারি সংস্থার হাতে না পড়ে, যদি যারা এই সব লোকের ক্ষতি করতে চান তাদের হাতে পড়ে, তবে এই ধরনের টেলিফোন ও কম্পিউটারের ব্যবহারকারীদের প্রচুর ক্ষতি হয়ে যেতে পারে".

    বিশেষজ্ঞদের তথ্য অনুযায়ী অ্যাপল কোম্পানীর সার্ভার গুলিতে এই যাতায়াতের তথ্য সমেত ফাইল পাঠানো হয় নি ঠিকই, কিন্তু সমস্ত তথ্য এই সমস্ত যন্ত্রের স্মৃতিতে রয়ে গিয়েছে. কোম্পানীতে বর্তমানে এই ধরনের বিতর্কিত কারবার সম্বন্ধে আপাততঃ কোন মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছেন. নাদেঝদা আলজোবা মনে করেন যে, অ্যাপল কর্পোরেশনের ইঞ্জিনিয়ারেরা এই প্রোগ্রাম তৈরী করেছেন নিরাপত্তার কথা ভেবে, তাই বলেছেন:

    "বোধহয় এই ধরনের পরিবর্তন করা হয়েছিল আইন রক্ষা কারী দপ্তর গুলির কথা ভেবে. বর্তমানে সমস্ত রকমের সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের বিরুদ্ধে লড়াই সক্রিয় করা হয়েছে অন্যান্য অপরাধ দমন করার চেষ্টাও হচ্ছে. তাই বোধহয় অ্যাপল এই ধরনের পরিবর্তন করেছে".

    অ্যাপল কর্পোরেশনকে এই প্রথমবার সম্মতি ছাড়াই তথ্য সংগ্রহের বিষয়ে অভিযুক্ত করা হচ্ছে না. এই তো এক মাসও হয়নি এক আই ফোন ৪ ব্যবহারকারী গ্রাহক অভিযোগ করেছে যে, এই টেলিফোন বিনা অনুমতিতে ফোটো তুলে তার স্মৃতিতে গোপন জায়গায় ধরে রাখে. এক রকমের ধারণা করা হয়েছে যে, কোম্পানী চাইছে কোড পরিবর্তিত স্মার্ট ফোন ও সেই ধরনের পরিবর্তন কারী হ্যাকারদের ধরতে. কম্পিউটার নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞরা বহু দিন আগেই সাবধান করে দিয়েছেন যে, অ্যাপল কর্পোরেশনের যন্ত্র গোয়েন্দাগিরি করার জন্য খুবই ভাল মাধ্যম. আই ফোন ও আই প্যাড ব্যবহার করে তোলা একটি ফোটো থেকেই ভৌগলিক অবস্থান ও এই যন্ত্রের নিজস্ব সিরিয়াল নম্বর নির্ণয় করা সম্ভব. এটা সরকারি সংস্থা, বড় কর্পোরেশন ও ব্যক্তিগত গোপনীয় বিষয়ে খুবই গুরুত্বপূর্ণ আঘাত, যেখানে লোকেরা এই জাতের যন্ত্র ব্যবহার করছেন সময়ের সঙ্গে তাল মেলাতে গিয়ে.