0ইউরোপের পুলিশের হাতে এমন তথ্য নেই যে, ইউরোসঙ্ঘের দেশগুলিতে নিষিদ্ধ বস্তু সরবরাহের জন্য রাশিয়াকে ট্রানজিট দেশ হিসেবে ব্যবহার করা হয়. এ সম্বন্ধে জানিয়েছেন রাশিয়ার নার্কোটিক আবর্তন নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত ফেডারেল বিভাগের ডিরেক্টর ভিক্তর ইভানোভ. তাঁর কথায়, পরিস্থিতি একেবারে উল্টো চরিত্রের – দেশে সাইকোট্রপিক বস্তুর যথেষ্ট অংশ আসে ইউরোপ থেকে. তিনি আরও যোগ করে বলেন যে, রাশিয়ায়, সর্বপ্রথমে আফগানিস্তান থেকে বছরে আসে মোট ৩০ টন নার্কোটিক বস্তু. তাঁর বিভাগ একাধিকবার ন্যাটো জোটকে আহ্বান জানিয়েছে ঐ দেশে আফিংয়ের চাষ ধ্বংস করার, কিন্তু তা নিষ্ফল হয়েছে. জোটের নেতৃবৃন্দের মতে, এমন ব্যবস্থা বেশির ভাগ স্থানীয় কৃষককে জীবনধারণের সঙ্গতি থেকে বঞ্চিত করবে, এবং তাদের তালিবান পক্ষের দিকে ঠেলে দেবে.