রাশিয়ার সরকারি হোল্ডিং কোম্পানী "রাশিয়ার হেলিকপ্টার" শেয়ার বাজারে আত্মপ্রকাশ করছে. কোম্পানী লন্ডনের শেয়ার বাজারে প্রায় শতকরা তিরিশ ভাগ শেয়ার নিয়ে উপস্থিত হচ্ছে ও আশা করেছে যে, এর জন্য প্রায় ৫ কোটি ডলার বাজার থেকে বিনিয়োগ পাওয়া যাবে. বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, এটা একটা প্রতীকী ঘটনা, এই প্রথমবার রাশিয়ার সামরিক প্রতিরক্ষা শিল্পের প্রতিনিধি খোলা বাজারে শেয়ার বেচার কথা বলেছে.

রাশিয়া স্থির করেছে আগামী চার বছরের মধ্যে বিশ্বের মোট হেলিকপ্টার কেনাবেচার বাজারের শতকরা ১৭ ভাগ দখল করে বিশ্বের তৃতীয় হেলিকপ্টার উত্পাদক দেশে পরিনত হবে. এর জন্যে এই শিল্পের সমস্ত পারিপাশির্ক উন্নতি, যা দ্রুত বৃদ্ধি হচ্ছে ও আগামী সময়েই তা বেড়ে যাবে প্রায় একের তৃতীয়াংশ.

এই ভাবে বলা যেতে পারে যে, "রাশিয়ার হেলিকপ্টার" হোল্ডিং সবচেয়ে লাভজনক সময়কেই বেছে নিয়েছে. এই হোল্ডিং, যেখানে রাশিয়ার সমস্ত হেলিকপ্টার নির্মাণ কারী কোম্পানী সংযুক্ত, আজ সমস্ত মূল্যায়নেই ভাল ফল দেখিয়েছে ও তার বিক্রয়ের যোগ্য ক্রেতাও রয়েছে, এই কথা উল্লেখ করে "রেডিও রাশিয়া" কে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে এই শিল্প সংক্রান্ত বিশ্লেষক আরতিওম লাভরিতশেভ বলেছেন:

"গত বছরের ফলাফল অনুযায়ী কোম্পানী প্রায় ২১৪টি হেলিকপ্টার নিজেদের বায়নাকার দের কাছে পৌঁছে দিয়েছে, তার মধ্যে শতকরা সত্তর ভাগই বিদেশে রপ্তানী হয়েছে. এই প্রসঙ্গে কোম্পানী পরবর্তী কালে উত্পাদন বাড়ার ও পশ্চিমের বাজারে তা বিক্রী করার মতো যথেষ্ট সম্ভাবনা দেখতে পেয়েছে. বর্তমানে প্রধান ক্রেতা দেশ ভারত ও চিন, তার সঙ্গে যোগ করা যায় সৌদি আরব ও লাতিন আমেরিকার দেশ গুলিকে".

এখানে উল্লেখ করার দরকার আছে যে, এখন পর্যন্ত রাশিয়ার বিমান শিল্পের একমাত্র প্রতিনিধি কোম্পানী যারা শেয়ার বাজারে উপস্থিত হয়েছিল – তা ছিল ইরকুত কর্পোরেশন. কিন্তু "রাশিয়ার হেলিকপ্টার" হোল্ডিং এর ক্ষেত্রে - এটা একই সঙ্গে প্রথম সামরিক শিল্পের প্রতিনিধি, এই কথা উল্লেখ করে আরতিওম লাভরিতশেভ বলেছেন:

""রাশিয়ার হেলিকপ্টার" হোলডিং কোম্পানীর শেয়ার বাজারে উপস্থিত হওয়া একটা প্রতীকী ঘটনা, আমাদের সামরিক শিল্পের এটি প্রথম প্রতিনিধি কোম্পানী, যাদের লন্ডনের খেলা শেয়ার বাজারে তালিকাভুক্তি ঘটতে চলেছে. এই মুহূর্তে এই ধরনের শেয়ার বাজারে আর একটিও নেই, যা শেয়ার বাজারে উপস্থিত, তার মধ্যে আবার লন্ডনে. কোম্পানী চাইছে শতকরা ২৫ -৩০ ভাগ শেয়ার বিক্রী করতে, যা বিনিয়োগ কারীদের জন্য খুবই ভাল লক্ষণ".

হোল্ডিং বর্তমানে রাশিয়াতে বিনিয়োগকারী ও বিশ্লেষকদের সঙ্গে সাক্ষাত্কার করছে. পরিকল্পনা রয়েছে একই ধরনের পরামর্শ সাক্ষাত্কার সুইজারল্যান্ড, গ্রেট ব্রিটেন, সুইডেন, ফ্রান্স ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করা হবে, বিনিয়োগের বাজারে এই ধরনের প্রদর্শনী মূলক আলোচনা শুরু হচ্ছে এপ্রিল মাসের শেষ থেকে. শেয়ার বাজারে আসছে মে মাসের প্রথম দশ দিনের মধ্যে.