জাপানের উত্তর-পুবে বৃহস্পতিবার ৭.৪ মাত্রার যে ভূমিকম্প হয়েছে, তাতে অন্ততপক্ষে ২জন মারা গেছে এবং ১৩০জনের উপর আহত হয়েছে. নতুন ভূমিকম্প বহুসংখ্যক অগ্নিকান্ডের কারণ হয়েছে এবং বাড়ির গ্যাস সরলরাহ ব্যবস্থার যথেষ্ট ক্ষতি সাধন করেছে. বিদ্যুত্শক্তির নিয়মিত সরবরাহে বিঘ্ন ঘটেছে. ভূমিকম্প জাপানের পারমাণবিক বিদ্যুত্ কেন্দ্রগুলির বিদ্যুত সরবরাহে সমস্যা সৃষ্টি করেছে, কিন্তু তা অভাবিত পরিস্থিতি সৃষ্টি করে নি. দুর্ঘটনাগ্রস্ত "ফুকুসিমা-১" বিদ্যুত্ কেন্দ্রের নতুন ক্ষতি হয়েছে. এই শেষ ভূমিকম্প তথাকথিত আফটার শকের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ছিল ১১ই মার্চের ধ্বংসাত্মক ভূমিকম্পের পরে.