উত্তর আফ্রিকা ও মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলিতে- লিবিয়া, বাহরেন, ইয়েমেন, আলজিরিয়া ও অন্যান্য দেশে অত্যাচার বৃদ্ধিতে বিশ্ব জনসমাজ গুরুতরভাবে উদ্বিগ্ন. এ সব দেশে ব্যাপক সরকারবিরোধী আন্দোলন চলছে এবং মিছিলকারীদের সাথে পুলিশের সঙ্ঘর্ষ ঘটছে. রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সম্পাদক এ সব দেশের নেতাদের আহ্বান জানিয়েছেন বলপ্রয়োগ না করার এবং মানব অধিকার শ্রদ্ধা করার. বান কি মুন উল্লেখ করেন ব্যাপক সংলাপের এবং প্রকৃত সামাজিক ও রাজনৈতিক সংস্কারের সময় এসেছে. সবচেয়ে জটিল অবস্থা বজায় রয়েছে লিবিয়ায়. আন্তর্জাতিক মানব অধিকার রক্ষকদের তথ্য অনুযায়ী, সেখানে কর্তৃপক্ষ ও বিরোধীপক্ষের সশস্ত্র বিরোধিতার শিকার হয়েছে ২৩৩ জন. তারা দাবি করছে রাষ্ট্রনেতা মুয়ামার কাদ্দাফির পদত্যাগের, যিনি ক্ষমতায় রয়েছেন ৪২ বছর. রবিবার তাঁর ছেলে সেইফ আল-ইস্লাম বলেছেন যে, লিবিয়া গৃহযুদ্ধের সীমারেখায় রয়েছে.