করাচী শহরের পুলিশ তালিবদের একজন গেরিলা কম্যাণ্ডার কে গ্রেপ্তার করেছে, সরেজমিন খান গুলির আঘাতে আহত অবস্থায় এক স্থানীয় হাসপাতালে চিকিত্সাধীন ছিল. সে ছাড়া আরো তিন জন লোক ধরা পড়েছে, তার মধ্যে হাসপাতালের অধ্যক্ষ ও আছেন. এর আগে পশ্চিমের সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছিল যে, তালিবান আন্দোলনের নেতারা পাকিস্তানে চিকিত্সা করিয়ে তাকে. জানুয়ারী মাসে ওয়াশিংটন পোস্ট আমেরিকার গুপ্তচর বিভাগের খবরকে উত্স করে প্রকাশ করেছিল যে, করাচী শহরের শহরতলিতে আফগানিস্তানের যোদ্ধা মোল্লা ওমর হার্ট অ্যাটাকের পরে সেরে উঠছে. কিন্তু পাকিস্তানের সরকার এই সব খবর অস্বীকার করেছিল. তালিবদের প্রতিনিধিরা জানিয়েছিল যে, ওমর সুস্থ.