টিউনিশিয়ার প্রশাসন দেশের সমুদ্র তীরবর্তী অঞ্চল গুলিতে বিশেষ বাহিনী নিয়োগ করেছে, কারণ সমুদ্র পার হয়ে ইউরোপে প্রবেশ করার জন্য দলেদলে শরনার্থী আসতে যেতে শুরু করেছে. জুঁই ফুল বিপ্লব নামে ডিসেম্বর মাসের জনতার বিপ্লবে দেশের সরকার উল্টে যায়. বিগত কয়েক দিনে ইতালির সিসিলি ও টিউনিশিয়ার মাঝে ইতালির দ্বীপ লাম্পেডুজায় পাঁচ হাজার শরনার্থী আশ্রয় চেয়েছে. শনিবারে ইতালির সরকার টিউনিশিয়া থেকে শরনার্থী প্রবেশের বিষয়ে মানব বিপর্যয় ঘোষণা করেছে. এই দ্বীপে এর মধ্যেই পানীয় জলের অভাব দেখা দিয়েছে. ইতালি ইউরোপীয় সংঘের দেশ গুলির কাছে সাহায্যের আবেদন করেছে, আর একই সঙ্গে টিউনিশিয়ার সমুদ্র তীরের কাছে অভিবাসন রোধ করতে ফ্রন্টেক্স নামে অপারেশন শুরু করেছে.