বিশ্ব সমাজ ইজিপ্টের ঘটনা খুবই মনোযোগ দিয়ে দেখছে. ১১ই ফেব্রুয়ারী ইজিপ্টের রাষ্ট্রপতি হোসনি মুবারক পদত্যাগ করেছেন. বিশ্বের সমস্ত নেতাই এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন. মুবারকের পদত্যাগ প্রমাণ করেছে যে, বর্তমানের বিশ্বের প্রশাসন সামাজিক সমঝোতার প্রয়োজন বোধ করেছে, এই কথা বলেছেন রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী সের্গেই লাভরভ. রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব বান গী মুন বলেছেন যে, ইজিপ্টের জনতার স্বর শোনা হয়েছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামা নিজের থেকে বলেছেন যে, ইজিপ্টের নেতার পদত্যাগ – দেশের গণতান্ত্রিক পথে চলার প্রথম পদক্ষেপ. ফ্রান্স, জার্মানী, ইতালি ও অন্যান্য দেশের পক্ষ থেকে মুবারকের পদত্যাগকে গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক ঘটনা বলে অভিহিত করা হয়েছে. ২৫শে জানুয়ারী থেকে ইজিপ্টের সমস্ত বড় শহরে বিদ্রোহ ঘোষণা করে স্থানীয় জনগন ৮২ বছরের রাষ্ট্রপতির পদত্যাগ দাবী করছিল. মুবারক এই দেশের রাষ্ট্রপতি পদে ছিলেন প্রায় তিরিশ বছর. এই গণ বিক্ষোভের দিন গুলিতে কম করে হলেও ৩০০ লোক প্রাণ হারিয়েছেন.