প্রয়োজনে সামরিক শক্তি প্রয়োগ করা হবে, শুধু জোটের দেশ গুলির সঙ্গে একসাথেই নয়, নিজেদের পছন্দ মতও. স্ট্র্যাটেজিক লক্ষ্য হিসাবে বলা হয়েছে আল কায়দা ও তাদের সহযোগী দল গুলিকে, যারা আফগানিস্তান, পাকিস্তান, সোমালি, ইয়েমেন এই ধরনের দেশে রয়েছে. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার সঙ্গেও সামরিক সহযোগিতা বাড়াতে চায়, স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা হ্রাস, সন্ত্রাসের মোকাবিলা, পারমানবিক অস্ত্র প্রসার রোধ, মহাকাশ ও রকেটে বিরোধী ব্যবস্থা ইত্যাদি নিয়ে.