নরওয়ে দেশের লোকসভা সদস্য স্নোরে ভালেন ব্রিটেনের সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী এই প্রস্তাব করেছেন. তাঁর মতে, এই সাইট একবিংশ শতাব্দীতে স্বাধীনতা ও গ্লাসনোস্ত বিষয়ে সংগ্রামে নিজের অবদান প্রথম সারিতে রাখতে পেরেছে. দুর্নীতি সম্বন্ধে, মানবাধিকার লঙ্ঘণ সম্বন্ধে ও সামরিক অপরাধ নিয়ে উইকিলিক্স সাইট তথ্য মানুষের সামনে তুলে ধরেছে ও এই কারণেই সাইট নোবেল শান্তি পুরস্কার পাওয়ার দাবীদার হতে পারে বলে মনে করেন লোকসভার সদস্য. গত বছরে এই সংস্থা বিশ্বের সংবাদ মাধ্যমের সামনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের চিঠি পত্র তুলে ধরে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিতে পেরেছিল. এই দলিল গুলিতে বিশ্বের বহু দেশ সম্বন্ধে গোপনীয় তথ্য রয়েছে.