রাশিয়াতে আজ থেকে এক সপ্তাহ ব্যাপী রু নেট নিরাপত্তা উত্সব হতে চলেছে. এটি আন্তর্জাতিক অনুষ্ঠান সূচীর সরকারি অংশ – যা ইউরোপীয় পরিষদের তত্ত্বাবধানে পালন করা হয়ে থাকে বিশ্বের ৫০টি দেশে.

    রু নেট নিরাপত্তা সপ্তাহ – একটি ঘটনা, যা রাশিয়াতে এর মধ্যেই ঐতিহ্য সৃষ্টি করেছে. এর উদ্দেশ্য হল – নিষিদ্ধ বিষয় বস্তুর ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রসারে বিরুদ্ধে সমাজকে সচেতন করা, তার মধ্যে রয়েছে: শিশুদের নিয়ে পর্নোগ্রাফী, চরমপন্থী, সন্ত্রাসবাদী, বিভিন্ন সাম্প্রদায়িক তথ্যের প্রচার, মাদক দ্রব্যের প্রচার ও একই সঙ্গে ইন্টারনেটে লোক ঠকানো.

    বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতই রাশিয়াতে এই সব বিষয়ে সমাধান করা হয়ে থাকে সরকার, সামাজিক সংস্থা ও আইন রক্ষা কারী দপ্তর গুলির সম্মিলিত প্রচেষ্টায়, এই কথা রেডিও রাশিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে নিরাপদ ইন্টারনেট কেন্দ্রের প্রধান উরভান পারফেনতেয়েভ বলেছেন

    "যে সব দেশে বহু দিন ধরে ইন্টারনেট রয়েছে, সেখানে ব্যবস্থা রয়েছে এক হট লাইন থাকার, যেখানে ফোন করে গ্রাহকেরা নিজেদের পরিচয় না দিয়েও যে কেন রকমের নিয়ম বিরুদ্ধ বিষয় বস্তু সম্বন্ধে জানাতে পারে. তারপরে সামাজিক অধিকার সংক্রান্ত সংস্থা গুলি এই বিষয় বস্তু গুলির নিরপেক্ষ বিচার করার ব্যবস্থা করে, আর তা যদি প্রমাণিত হয়, তবে সেই বিষয় বস্তুর প্রসার রোধ করা হয়ে থাকে. আর সরকার ও আইন রক্ষা কারী দপ্তর আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়ে থাকে".

    যে সমস্ত বিষয় বস্তু প্রসার নিষিদ্ধ তার মধ্যে শুধু শিশু দের নিয়ে পর্নোগ্রাফী নেই, যদিও তা নিয়ে অনেক কথাই বলা হয়েছে, বরং বলা যেতে পারে যে, এটা সুখের বিষয়, খুব কম লোকের নজরেই তা পড়েছে, কিন্তু তার মধ্যে এমন বিষয় বস্তুও থাকে যেখানে কৃতিস্বত্ব ও অন্যান্য অধিকার লঙ্ঘণ করা হয়েছে. গত বছরে অভিশংসক দপ্তরের সিদ্ধান্তে সব চেয়ে বড় ফাইল বিনিময়ের সাইট টরেন্টস . রু বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল. এই গত সপ্তাহেই কনট্যাক্ট সাইটের এক গ্রাহক যে তার নিজের পাতায় এক বিখ্যাত দলের ১৮টি গান কৃতিস্বত্ব আইন লঙ্ঘণ করে ঝুলিয়ে ছিল, তার বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা দায়ের করা হয়েছে. সাইটের অন্যান্য গ্রাহকেরা এই গান গুলিকে ২ লক্ষ বার ডাউনলোড করেছে, আর এই গান গুলির স্বত্ব, যার, তার বহুল পরিমানে আর্থিক ক্ষতি হয়েছে. কিন্তু কখনো বেআইনি বিষয় বস্তু বড় গোলমাল ঠেকাতে সাহায্য করে. এই বছরের ১১ ই জানুয়ারী, যেমন মস্কো শহরের পুলিশ বাহিনী টুইটার সাইটে দেখতে পেয়েছিল যে, চরমপন্থী যুব দলের লোকেরা গণ্ডগোলের পরিকল্পনা করছে.

    আজ ১লা ফেব্রুয়ারী রু নেট মাধ্যমে কি ধরনের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে, তা নিয়ে এক গোল টেবিল বৈঠকে মস্কো শহরে বলা হবে. এখানে আলোচ্য বিষয় গুলির মধ্যে জাতি বিদ্বেষ নিবারণে ইন্টারনেটের ভূমিকা ও ইন্টারনেটে চরমপন্থী দলগুলির কার্যকলাপের এক বিশেষ বিরল পরিসংখ্যান জানানো হবে. বিশেষজ্ঞরা সেই সমস্ত বিষয় নিয়ে কথা বলবেন, যেমন, বিশ্ব জোড়া এই ইন্টারনেটের জালের রুশ এলাকায় কি করে নিষিদ্ধ বিষয় বস্তুর প্রবেশ রোধ করা যায়, তার প্রযুক্তি গত ও কাঠামো গত ব্যবস্থা সম্বন্ধে.