নাওতো কান অর্থনৈতিক বিষয়ে সহযোগিতার পক্ষে, তিনি প্রাথমিক সহযোগিতার ক্ষেত্র হিসাবে দেখেছেন প্রাকৃতিক সম্পদ আহরণ, তার মধ্যে সাখালিন অঞ্চলের খনিজ তেল নিষ্কাশন রয়েছে এবং রাশিয়ার অর্থনীতির আধুনিকীকরণে সহযোগিতাও আছে. জাপানের পার্লামেন্টে বক্তৃতা দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন যে, টোকিও রাশিয়ার সঙ্গে সমস্যা বহুল কুরিল দ্বীপপূঞ্জ নিয়ে আলোচনা সক্রিয়ভাবে করতে চায় ও শান্তি চুক্তি করতেও চায়. তিনি জানিয়েছেন যে, জাপানের পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রধান সেইঝি মায়েহারা শীঘ্রই মস্কো সফরে যাবেন ফলপ্রসূ মত বিনিময়ের জন্য.