টিউনিশিয়ায় জাতীয় ঐক্যের সরকার দেশের পরিস্থিতির উপর সদর্থক প্রভাব বিস্তার করেছে. ঘত রাতে কোনো সঙ্ঘর্ষ ঘটে নি. মোটর পরিবহণ ব্যবস্থা কাজ করতে শুরু করেছে, দোকান-পাট খুলছে, পেট্রল ভরার কেন্দ্র, বিমানবন্দর এবং সামুদ্রিক বন্দরগুলি স্বাভাবিকভাবে কাজ করছে. তবে, জরুরী অবস্থা জারি থাকার জন্য লোকে কাজ করছে সংক্ষিপ্ত সময়-নির্ঘন্ট অনুযায়ী. স্থিতিশীলতা সত্ত্বেও পরিস্থিতি কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করছে.বিদ্রোহের ফলে ১৪ই জানুয়ারী রাষ্ট্রপতি জিন আল-আবিদিন বেন আলির শাসনের পতন ঘটে, এবং এই আন্দোলনের সময় অত্যাচারের ঢেউয়ে ৭৮ জন নিহত হয়, ৯৮ জন আহত হয়. দেশের অর্থনীতির ক্ষতি হয় দেড়শো কোটি ইউরোর. এ দেশে থাকা ৭৮ জন রাশিয়ার পর্যটক আজ সন্ধ্যায় দেশে রওনা হবে.