রাশিয়ার অর্থনৈতিক বৃদ্ধি, শৈশবের সমস্যার সমাধান, গ্রীষ্মকালের দাবানল, স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তি এবং মহান বিজয়ের ৬৫তম বার্ষিকী – ২০১০ সালের পাঁচটি প্রধান প্রধান ঘটনা. এ সম্বন্ধে রাষ্ট্রপতি দমিত্রি মেদভেদেভ আজ বলেছেন রাশিয়ার প্রধান প্রধান টেলি-চ্যানেলকে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে. প্রথমত, দীর্ঘকালীন, তবে অতি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা- অর্থনৈতিক সঙ্কট থেকে রাশিয়ার বের হওয়া. মেদভেদেভ উল্লেখ করেন, “আমরা নিচে পড়ে যাই নি, বিকশিত হয়েছি, কাঠিন্যের সাথে. মসৃনভাবে নয়, তবুও এটা ছিল বৃদ্ধি”. বছরের ফলাফল অনুযায়ী, “আমরা ৪ শতাংশের মানে পৌঁছোব”. দ্বিতীয়ত, শৈশবের সমস্যার প্রতি আমাদের দৃষ্টিভঙ্গী নতুন. শিশুদের প্রতি সঠিক যত্ন ছাড়া আমাদের ভবিষ্যত নেই, স্থিরবিশ্বাস রাষ্ট্রনেতার, এবং মনে করিয়ে দেন যে, ফেডারেল সভার প্রতি বার্তায় তিনি এ প্রশ্নের প্রতি বিপুল মনোযোগ দিয়েছেন. তৃতীয় বিষয় – এ হল আবহাওয়ার জটিলতা, দাবানল, প্রাকৃতিক দুর্যোগ, যা গ্রীষ্মকালে রাশিয়াকে ভুগিয়েছে. মেদভেদেভ বলেন, “আরও একটি বিষয় অতি গুরুত্বপূর্ণ- নিরাপত্তা”. রাষ্ট্রপতির স্থিরবিশ্বাস, আমরা আসতে পেরেছি অতি গুরুত্বপূর্ণ চুক্তির স্বাক্ষরে – স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা হ্রাস সম্পর্কে. এটি আসন্ন দশ বছরে সারা পৃথিবীতে, তথা ইউরোপীয় মহাদেশে নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করায় বনিয়াদ স্বরূপ. মেদভেদেভ ২০১০ সালের পঞ্চম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উল্লেখ করেন এ ভাবে – “মহান বিজয়ের ৬৫তম বার্ষিকীর কথা উল্লেখ না করে পারি না. এটি বিশেষ দিবস, যা আমাদের পরিণত করে আধুনিক মানুষে এবং অতীতের কথা ভুলে যেতে দেয় না”.