রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিন বিখ্যাত ল্যারি কিং-কে প্রদত্ত ইন্টারভিউতে বলেছেন যে, রাশিয়া গণতন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে এবং দৃঢ় পদে এ পথে এগিয়ে যেতে চায়. প্রধানমন্ত্রী রাশিয়ার স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্রনীতির কথা বর্ণনা করেন এবং বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন, যেমন আসন্ন নির্বাচন সম্বন্ধে, বিশেষ বিভাগের কাজ সম্বন্ধে, ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি সম্বন্ধে, উত্তর কোরিয়া ও আফগানিস্তানে পরিস্থিতি সম্বন্ধে, স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তির ভবিষ্যত্ সম্বন্ধে এবং “উইকিলিক্সের” সাইটে কর্ম সংক্রান্ত পত্রালাপ প্রকাশ সম্পর্কে তাঁর মনোভাব সম্বন্ধে. পুতিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার নীতির মূল্যায়ন করেন এবং আমেরিকানদের ব্যাখ্যা করেন যে রাশিয়া আমেরিকা ও তার সহযোগীদের বিপন্ন করছে না. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যদি স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক অস্ত্রসজ্জা সংক্রান্ত চুক্তি অনুমোদন না করে, এবং ন্যাটো জোট ও রাশিয়া রকেটবিরোধী “ঢাল” সম্বন্ধে নিজেদের স্থিতি সর্বসম্মত না করে, তাহলে অস্ত্র প্রতিযোগিতার আরও এক চক্র দেখা দেবে কি না, ল্যারি কিং-এর এ প্রশ্নের উত্তরে পুতিন ব্যাখ্যা করে বলেন যে, রাশিয়ার সমস্ত প্রস্তাবে যদি শুধু নেতিবাচক উত্তর দেওয়া হয় এবং রাশিয়ার সীমানার কাছে অতিরিক্ত বিপদ দেখা দেয়, তাহলে রাশিয়া  “নিজের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে বাধ্য হবে বিভিন্ন উপায়েঃ” নিজের সীমানার কাছে নতুন নতুন আঘাত হানার ব্যবস্থা মোতায়েন করে, রকেট-পারমাণবিক প্রযুক্তির নতুন নতুন উপায় সৃষ্টি করে, ইত্যাদি. পুতিন বলেন, “আমরা মোটেই তা চাই না”.