ভিক্তর বুত নিউ-ইয়র্কে রাশিয়ার কনস্যুল বিভাগের প্রতিনিধিদের সাথে সাক্ষাতে থাইল্যান্ডের জেলখানায় তার প্রতি “খারাপ ব্যবহার” সম্পর্কে জানিয়েছে. থাইল্যান্ডের কর্তৃপক্ষ তাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাতে সমর্পণ সম্পর্কে জানায় নি, এ সম্পর্কে সে জানতে পারে প্লেনে ওঠার সিঁড়ির কাছে, উল্লেখ করা হয়েছে কনস্যুল বিভাগে. বুত আরও বলেছে যে, তাকে এমন কামরায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার বার বার চেষ্টা করা হয়, যেখানে মৃত্যুদন্ডে দন্ডিত অপরাধীদের রাখা হয়. তাছাড়া, থাইল্যান্ডের কর্তৃপক্ষ মার্কিনীদের হাতে তাকে সমর্পণ করার সময় তার কাছ থেকে কেড়ে নিয়েছে ব্যক্তিগত জিনিসপত্র, সেই সঙ্গে পোষাক এবং অর্থ. আর সমর্পণের সময় তার উপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তরফ থেকেও চাপ দেওয়া হয়. তাকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় “কোনো সুবিধার” সেই সব স্বীকৃতির বদলে, যা সে করে নি. এ সব প্রস্তাব বুত প্রত্যাখান করে. তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হচ্ছে মার্কিনী নাগরিক ও পদাধিকারী ব্যক্তিদের হত্যার ষড়যন্ত্র করার, আকাশ-বিরোধী প্রতিরক্ষার রকেট কেনার ও বিক্রি করার এব সন্ত্রাসবাদীদের অস্ত্র সরবরাহ করার. বুত এর প্রাক্কালে নিজের নির্দোষিতা সম্বন্ধে নিউ-ইয়র্কের আদালতে ঘোষণা করেছে.