চাঁদের দিকে চীনের পাঠানো “চানইয়ে-২” নামে গবেষণামূলক স্পুতনিক নিজের মুখ্য কর্তব্য পালন করেছে, চাঁদের পৃষ্ঠভাগে অন্যান্য মহাকাশযানের অবতরণের জন্য জায়গার ফোটো তুলেছে. এ সম্বন্ধে সরকারীভাবে ঘোষণা করা হয়েছে দেশের প্রতিরক্ষা কমিটির বিশেষ সমারোহে, যাতে অংশগ্রহণ করেন চীনের প্রধানমন্ত্রী ভ্যান জিয়াবাও. তিনি নিজে দেখান চাঁদের পৃষ্ঠভাগের ফোটো, যেখানে তাঁদের চান্দ্র্যযান অবতরণ করবে. স্পুতনিক “চানইয়ে-২” মহাকাশে পাঠানো হয় পয়লা অক্টোবর- চীনা গণপ্রজাতন্ত্র গঠনের দিন. চন্দ্রের অধ্যয়নের চীনা কর্মসূচি তিনটি ভাগে বিভক্ত. চাঁদের দিকে প্রথম স্পুতনিক পাঠানো হয়েছিল ২০০৭ সালের অক্টোবরে. কক্ষপথে তা কাজ করে ১৬ মাস. এর ফলে চাঁদের পৃষ্ঠভাগের ত্রিমাত্রিক মানচিত্র তৈরি করা হয়. দ্বিতীয় পর্যায়ে চাঁদের পৃষ্ঠভাগে ২০১৩ সাল নাগাদ স্বয়ংচালিত সরঞ্জাম পৌঁছোনো হবে. আর চার বছর পরে অন্য একটি সরঞ্জাম পৃথিবীতে নিয়ে আসবে চাঁদের শিলার নমুনা. চীন চাঁদে নিজের মহাকাশচারী পাঠাবে ২০২০ সালের পরে.