প্রায় অর্ধ শতকের বেশী রেডিও স্টেশন, যারা স্বাধীন রাষ্ট্র সমূহে, ইউরোপে, এশিয়াতে ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রুশ ভাষাতে সম্প্রচার করে তাঁরা "আন্তর্জাতিক রুশ ভাষায় সম্প্রচার সংস্থার" সদস্য হয়েছেন. এই সংস্থার জেনেরাল ডিরেক্টর ওলেগ কুপ্রিয়ানভ বলেছেন আন্তর্জাতিক উত্সবের এটি গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য.

    এই ধরনের সংস্থা বিদেশের রুশী রেডিও গুলিকে সম্মিলিত ভাবে প্রকল্প তৈরী করতে সাহায্য করে, বিনিময় সুষ্ঠ ভাবে করা সম্ভব হয়. কি করে এই ব্যবস্থা ভাল ভাবে করা যেতে পারে, তা এই উত্সবের দিন গুলিতে ঠিক করা হয়েছে. "রেডিও রাশিয়া" ও "আন্তর্জাতিক রুশ ভাষার রেডিও কোম্পানীদের সংস্থার" উদ্যোগে এই সম্মেলন উত্সবের আয়োজন করা হয়েছিল, মস্কোতে এই উত্সব হল দ্বিতীয় বার. এখানে প্রায় তিরিশটি দেশ থেকে রুশ ভাষায় রেডিও যারা প্রচার করেন, তাদের প্রতিনিধিরা এসেছেন. আজকে তারা এক হয়েছেন সম্মিলিত ভাবে সকলের সমস্যা সমাধানের প্রচেষ্টায়. এখানে অংশতঃ www.radiopartner.ru নামে এক ইন্টারনেট সাইটের সাহায্য নেওয়া যেতে পারে. এই সাইটে রাজনীতি সংস্কৃতি ও সমাজ জীবন সম্বন্ধে বহু অনুষ্ঠান পাওয়া যাবে. এই সাইট তৈরী করা হয়েছে "রেডিও রাশিয়ার" উদ্যোগে. এই সাইটে সংস্থার সদস্যরা নিজেদের অনুষ্ঠানও রাখতে পারবেন, যা প্রয়োজনে অন্য দেশেও প্রচার করা সম্ভব হবে. "আন্তর্জাতিক রুশ ভাষার রেডিও কোম্পানীদের সংস্থার" জেনেরাল ডিরেক্টর ওলেগ কুপ্রিয়ানভ বলেছেন:

    "আমরা এমন সমস্ত অনুষ্ঠান এই সাইটে রাখছি, যা আমাদের সহকর্মীরা ব্যবহার করতে পারেন. কিন্তু এখনও অনেক কাজ করতে হবে. অংশতঃ গুণগত ভাবে সম্পূর্ণ তথ্য ভাণ্ডার, তাহলে এই সাইটের সমস্ত গ্রাহক সদস্য এক বিশাল সাংবাদিক নেটওয়ার্কের ও অংশীদার হতে পারবেন. কারণ ব্যবসায়িক রেডিও সংস্থা গুলিতে যে ধরনের অনুষ্ঠান তৈরী করা কঠিন যেমন, ঐতিহাসিক বা বৈজ্ঞানিক বিষয় নিয়ে অথবা রেডিও নাটিকা তৈরী করা, তা এখানে আলাদা করে রাখা থাকবে. প্রসঙ্গতঃ এখানে আমাদের জন্য বিস্ময়ের কারণ হয়েছে রুশী ভাষার বিশেষত্ব নিয়ে অনুষ্ঠান তৈরী করার প্রস্তাব".

    বর্তমানে রুশ ভাষায় রুশ দেশের বাইরে প্রচার করে প্রায় ৩০০টি রেডিও স্টেশন. আর বলা প্রয়োজন যে, রুশ ভাষায় প্রচার নির্দিষ্ট কিছু সমস্যার সম্মুখীণ হচ্ছে. এই ধরনের একটি সমস্যা হল – পেশাদার কর্মীর অভাব, যারা ভাল অনুষ্ঠান নির্ভুল রুশ ভাষায় করতে পারে, এই কথা বলেছেন "রেডিও প্রাগের" প্রধান সম্পাদক লিবর কুকাল.

    "আমাদের আগ্রহের বিষয় হল আমাদের কর্মীদের মস্কোতে প্রশিক্ষণ নেওয়ার সম্ভাবনা. এছাড়া আমাদের কাছে আগ্রহের বিষয় হল ঐতিহাসিক বিষয় নিয়ে গোল টেবিল আলোচনার বন্দোবস্ত করা".

    একটি বিস্ময়কর বিষয় হল বিশ্বে চীনের পরই রুশ ভাষা ভাষী লোকেরা যারা অন্য দেশে রয়েছেন তারা সর্বাধিক সংখ্যায়. চীনাদের সংখ্যা যদিও দশ গুণ বেশী. রাশিয়া যাদের এক সময়ে পিতৃভূমি ছিল, তাদের কি এক করে? অবশ্যই সেটা হল রুশ ভাষা, রুশী সংস্কৃতি, আমাদের সকলের এক ইতিহাসের প্রতি ঐতিহ্যের প্রতি এক সযত্ন সংরক্ষণের প্রচেষ্টা. এখানে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ হল – পিতৃভূমির সঙ্গে যোগাযোগ. এই প্রশ্ন আমাদের জন্য প্রাথমিক ভাবে দরকারী, তাই কানাডার "আমাদের তরঙ্গ" রেডিও থেকে আসা প্রযোজক ওলেগ চেরনাতা বলেছেন:

     "আমি প্রায়ই ১৯১৭ সালে দেশ থেকে চলে যাওয়া রুশ লোকেদের বংশধর দের সঙ্গে দেখা করি, তাদের ছেলেমেয়েরা রুশ ভাষা ভাল করে জানেন না, কিন্তু তারা রাশিয়ার প্রতি আগ্রহ দেখায়. মানুষের প্রয়োজন হল মাতৃভাষার, তারা এই বিষয়ে ঐতিহাসিক ভাবে তাদের মাতৃভূমির কাছ থেকে সাহায্য আশা করে. আর তাই এই বিষয়ে সহযোগিতা করার ধারণা বিষয় টি খুবই দারুণ হয়েছে. কারণ কানাডার সরকার দেশের সরকারি ভাষার বাইরে অন্য কোন ভাষাতে যারা রেডিও প্রচার করে, তাদের কোন ভাবে অর্থনৈতিক সাহায্য করে না. তাই বর্তমানে রেডিও থিয়েটার করা আমাদের মত রেডিও স্টেশনের জন্য একেবারে বাস্তব নয়".

    এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন যে, এই সমস্যা মস্কোতে সব থেকে উঁচু মহলে বুঝতে পেরেছে. শুধুশুধুই তো আর রাশিয়ার রাষ্ট্রপতির প্রশাসনের প্রধান সের্গেই নারীশকিন এই আন্তর্জাতিক রুশ ভাষার রেডিও সম্প্রচার যাঁরা করেন সেই কোম্পানীগুলির সম্মেলন উত্সবে তো বলেন নি যে, মস্কো সেই সমস্ত প্রকল্প গুলিকে সাহায্য করবে, যা রুশ ভাষাতে প্রচার করে, তাদের একত্রিত হতে সাহায্য করে. এই শুরুর সময়ে "রেডিও রাশিয়া" তার নিজের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নিয়েছে, তাই এই বছরে বসন্তে এই নতুন সংস্থার সৃষ্টি হয়েছে. জেনেরাল ডিরেক্টর ওলেগ কুপ্রিয়ানভ ঘোষণা করেছেন যে, আমরা সব মিলিয়ে একটা তথ্য ভাণ্ডার তৈরী করতে চাইছি – যা ইউরোপের প্রচার সংস্থার মতই হবে.