অন্যতম বৃহত্ সন্ত্রাসবাদী সংস্থা – “আল-কাইদা” সারা পৃথিবীতে খৃস্টানদের নতুন নতুন আক্রমণের ভয় দেখাচ্ছে. চরমপন্থীরা ইন্টারনেটে এক বিবৃতি প্রচার করেছে, যাতে, বিশেষ করে, উল্লেখ করা হয়েছে যে, কেটে যাওয়া ৪৮ ঘন্টার চরম দাবি পুরণ না করা খৃস্টানদের পরিণত করছে “মোজাহেদদের ন্যায়সঙ্গত লক্ষ্যে”. কথা হচ্ছে সেই চরম দাবির, যা সন্ত্রাসবাদীরা পেশ করেছিল গত রবিবার. সে সময়ে জঙ্গীরা বাগদাদে একটি ক্যাথলিক গীর্জা দখল করেছিল, যাতে তখন ছিল ১০০ জনেরও বেশি লোক. সন্ত্রাসবাদীদের একটি দাবি ছিল দু দিনের মধ্যে মিশরে একটি খৃস্টান মঠে তথাকথিত জোর করে আটকে রাখা দুই নারীকে মুক্ত করার- পাদ্রীদের স্ত্রীদের- যারা নাকি খৃস্টান ধর্ম ছেড়ে ইস্লাম গ্রহণ করেছে. ইরাকী বিশেষ বাহিনীর দ্বারা হস্টেজদের মুক্ত করার অভিযানের সময় মারা যায় ৫৮ জন, যাদের মধ্যে ৪৬ জন গীর্জায় আসা খৃস্টান. বর্তমানে ইরাকে রয়েছে প্রায় সাড়ে ৫ লক্ষ খৃস্টান. খৃস্টান ধর্মের প্রতিনিধিরা ইরাকে একাধিকবার চরমপন্থীদের আক্রমণের লক্ষ্য হয়েছিল.