রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের স্থায়ী সদস্য-পদ প্রাপ্তির পরিপ্রেক্ষিত সংক্রান্ত প্রশ্নের সোজাসুজি উত্তর এড়িয়ে যাওয়া পরিলক্ষিত হয়েছে হোয়াইট হাউজে বুধবারের ব্রিফিংয়ে, যা উত্সর্গিত ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি বারাক ওবামার আসন্ন নয়া-দিল্লি সফরের প্রতি. মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের উপ-প্রধান বেন রডস, যিনি স্ট্র্যাটেজিক যোগাযোগের জন্য, অর্থাত্ আন্তর্জাতিক জনসমাজ ও প্রচার মাধ্যমের সাথে যোগাযোগের জন্য দায়িত্বশীল, সর্বপ্রথমে বলেন যে, ওয়াশিংটন এমনিতেই ভারতকে বিশ্ব স্থাপত্যে সমর্থনের চেষ্টা করছে আর সেইজন্যই এ দেশ অন্তর্ভুক্ত হয়েছে "বৃহত্ ২০টি দেশের". নিরাপত্তা পরিষদ সম্পর্কে বলব যে, পরবর্তী চক্রে ভারত তার সদস্য থাকবে. রডস সঠিক করে বলেন, ২০১১-২০১৩ সালে ভারত নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে. এইভাবে আমরা নিরাপত্তা পরিষদে তার সঙ্গে পারস্পরিকতার প্রত্যক্ষ সুযোগ পাব. অন্যদিকে উপ-পররাষ্ট্র সচিব উইলিয়াম বার্নস সংক্ষেপে যোগ করে বলেন যে তাঁর দেশ আন্তর্জাতিক স্থাপত্য, সেই সঙ্গে নিরাপত্তা পরিষদে যুক্ত হওয়ার পথের বিবেচনার গুরুত্ব স্বীকার করে, ২১ শতকের বাস্তবতা প্রতিফলনের জন্য.