রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেব সর্বরাশিয়া আদমশুমারীকে সবার জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ হিসাবে উল্লেখ করেছেন.মেদভেদেব তার স্ত্রী সিভেতলানাকে সাথে নিয়ে আদমশুমারিতে অংশ নেওয়া সময় এ বিবৃতি প্রদান করেন.রাশিয়ার নেতা উল্লেখ করেন যে,আদমশুমারী থেকে আমরা জানতে পারব যে,আমাদের দেশে জনসংখ্যা কত,আমাদের দেখতে কেমন,আমাদের অবস্থান ও আমাদের কী আছে.দিমিত্রি মেদভেদেব ও তার স্ত্রী নিজেদের ও তাদের পরিবারের তথ্য প্রদান করে আদমশুমারীর জন্য নির্ধারিত ফরম পূরণ করেন.তবে এর পূর্বে তারা গননাকারীর সাথে চা পান করে কিছু সময় আলাপ করেন.মেদভেদেব আদমশুমারী ক্ষেত্রে তার অভিজ্ঞতার কথা বলেন.তিনি ১৯৮৯ সনে সোভিয়েত ইউনিয়নের সময় সর্বশেষ আদমশুমারি কাজে অংশগ্রহন করেন.অবশ্যই নানা রকম রহস্য ছিল.তবে সামগ্রিকভাবে বলতে গেলে লোকজনদের মাঝেও তা ছিল বেশি.আমার স্মরণে আছে যে,এক সপ্তাহের মধ্যে এই বাড়ীটি যা ছিল আমাদের পিছনে সেখানে সবাই ফরম পূরণ করেছে.এমনকি কেউই দ্বিধা না করেই সবাই সরাসরি ফরম পূরণ করেছিল.আমি সেই সময় লেনিনগ্রাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডির শিক্ষার্থী ছিলাম.মেদভেদেব বলেন.আমাদের দেশের জন্য এই কাজটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ.বর্তমানে এই আদমশুমারী নির্ধারিত সময় থেকে কিছুটি পূর্বেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে.সাধারনত আদমশুমারী ১০ বছর অন্তর একবার অনুষ্ঠিত হয়.সর্বশেষ রাশিয়ায় জনগনের উপাত্ত সংগ্রহ করা হয় ২০০২ সনে.সাধারনত বৃহত্ত দেশসমূহ এই কার্যক্রমটি আয়জনের চেষ্টা করে মূলত গোলাকার জাতীয় কোন তারিখে,কোন বছর যার শেষে শূণ্য রয়েছে.রাশিয়া সেই ঐতিহ্য ধরে রেখেছে.আদমশুমারীর গুরুত্ব ব্যাখ্য করা অনেকটা জটিল বিষয়.যদিও তা অন্যতম তথ্য ভান্ডারের উত্স যা লোকসংখ্যার ও তার কাঠামোগত রুপ,দেশের এলাকা অনুসারে তাদের বিভক্ত করা,অর্থনৈতিক ও সামাজিক অবস্থা,জাতীয়তা,শিক্ষা কার্যক্রম ও ভাষার প্রয়োগ ব্যবস্থা.সবাই রাশিয়ার জন্য গুরুত্বেরযা এবারের আদমশুমারীর শ্লোগান তা কোন উদ্দেশ্য ছাড়াই ঠিক করা হয় নি.বর্তমান আধুনিক ধারায় উন্নয়নের জন্য রাষ্ট্রের ও সমাজের জানা দরকার যে,তা কোন পথে এগিয়ে যাচ্ছে.উল্লেখ করা যায় যে,২০০২ সনের আদমশুমারী থেকে পাওয়া তথ্যে গ্রামে জনগনের সংখ্যা কমে যাওয়া ও অন্যান্য পরিবার সংক্রান্ত সমস্যা থেকে পরবর্তীতে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে.যেমন,সুস্বাস্থ্য,শিক্ষা ও গ্রামীন অর্থনীতি.বর্তমানে এই অর্থনৈতিক মন্দাকালিন সময়ও রাশিয়ার রয়েছে কিছু সমস্যা .যেমন-বৃহত জনগোষ্ঠীর একটা অংশের বেকারত্বে থাকা ও সুনির্দিষ্ট বিষয় পেশাদারি জনবল তৈরী.বলা বাহুল্য যে,আদমশুমারী শুধুমাত্র রাষ্ট্রের জন্যই নয় বরং তা সমাজের জন্যও দরকারী.যা নিজের উন্নয়নের ফলাফল নিয়ে বিশ্লেষন করে,রাষ্ট্রের কার্যক্রম ও বিগত কয়েক বছরের সামগ্রিক জীবনের পর্যালোচনা করা. আদমশুমারীতে অংশ নিয়ে রাশিয়ার প্রতিটি নাগরিকই নতুন সামাজিক প্রক্লপ ও উন্নয়ন কার্যক্রমে স্রষ্টা হয়ে থাকবে.জনগনের সঠিক উপাত্ত ছাড়া রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক বিষয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া যায় না.রাশিয়ার  জনগনের অদূরবর্তী আকাঙ্খার বিষয়ে রাষ্ট্রকে পূর্বাভাষা দেওয়ার কাজে  এই সঠিক পরিসংখ্যান যথেষ্ট সাহায্য করবে.চলমান আদমশুমারীতে মোট ২০ জন ফেডারেল মন্ত্রী পুরো কার্যক্রম তদারকি করছেন.তাদের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বিশেষ রাষ্ট্রীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং সাধারন রুশিদের সাথে সরাসরি কথা বলার জন্য ৪ লাখ গননাকারি অংশ নিয়েছে.