এই বিষয়ে তাঁর বিশ্বাসের কথা মঙ্গলবারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্র সচিবের সমরাস্ত্র সংক্রান্ত চুক্তির নিয়ন্ত্রণ ও পরীক্ষার বিষয়ে সহকারী রোজ গট্টেম্যুলার নিউ ইয়র্কে বিদেশী সাংবাদিকদের সংবাদ মাধ্যম কেন্দ্রে বক্তৃতা দিতে গিয়ে বলেছেন. বিষয় সম্বন্ধে বিশদ করে লিখেছেন আমাদের রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক ভিক্তর এনিকিয়েভ.    আমি স্থির বিশ্বাস করি যে, শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বা রাশিয়াতেই নয়, বরং আরও বহু দেশের লোকেরা চান যে, শ্রীমতী গট্টেম্যুলার এর আশা পূর্ণ হোক. যদিও রুশ দেশে প্রাচীন কালেই একটা বচন প্রচলিত ছিল যে, লাফ দিয়ে খন্দ পার হওয়ার আগেই চীত্কার দিও না, এই সম্বন্ধে এখানে বলার প্রয়োজন আছে, কারণ অন্ততঃ নূতন চুক্তি গ্রহণের বিষয়ে এর মধ্যেই ইতিহাস রয়েছে. মনে করিয়ে দেওয়া যেতে পারে যে, রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতিরা প্রাগে আটই এপ্রিল এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছিলেন. সবচেয়ে বেশী আশা বাদীরা তখন আশা করেছিলেন যে, গরমের ছুটির আগেই আমেরিকার সেনেটে এই চুক্তি গৃহীত হবে, অর্থাত্ আগষ্ট মাসের প্রথম দশ দিন পেরোনোর আগেই. তারপরে আশা প্রকাশ করেছিলেন যে, মার্কিন কংগ্রেসের অন্তর্বর্তী নির্বাচনের আগে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সর্ব্বোচ্চ আই প্রণয়ন কারী ব্যবস্থা নভেম্বর মাসের শুরুতে এই চুক্তি গ্রহণ করবে. এখন মার্কিন রাজনীতির নেতৃত্ব ও প্রশাসনের অন্যান্য প্রতিনিধি এবং গট্টেম্যুলার এর ঘোষণা থেকে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে যে, স্ট্র্যাটেজিক আক্রমণাত্মক সমরাস্ত্র সংক্রান্ত নূতন চুক্তি সেনেটের সম্পূর্ণ সদস্য মন্ডলের সামনে উপস্থিত করা হবে বছর শেষের আগে.    সহকারী রাষ্ট্র সচিবের ভরসা যে ভিত্তিতে যে, এই চুক্তি গৃহীত হবে, তা ষোলই সেপ্টেম্বর সেনেটের পররাষ্ট্র পরিষদে ১৪ টি পক্ষে ও ৪ টি বিপক্ষের ভোটে সেনেটের সামনে এই চুক্তি কে গ্রহণের প্রস্তাব দিয়ে উপস্থিত করার আপীল গৃহীত হয়েছে বলে. এই প্রসঙ্গে ডেমোক্রাট দের সঙ্গে তিনজন রিপাবলিকান সদস্য যোগ দিয়েছিলেন. এটা ভাল লক্ষণ, যা আসার সঞ্চার করে যে, স্লোনের দলের থেকে প্রয়োজনীয় সংখ্যক প্রতিনিধিকে যোগাড় করা সম্ভব হবে, যাতে এই চুক্তি গ্রহণ করা সম্ভব হয়.    মস্কোতে বোঝাই যাচ্ছে, খুবই মনোযোগ দিয়ে দেখা হচ্ছে নতুন চুক্তির আশে পাশের বিষয় গুলিকে. এটা বেশী করে হচ্ছে, তার কারণ মেদভেদেভ ও ওবামা শর্ত করেছেন যে, এই চুক্তি এক সাথে দুই দেশেই গৃহীত হবে. এটা আরও ব্যাখ্যা করা যায় এই ভাবে যে, রাশিয়াতে এই চুক্তি নিয়ে কোন সমস্যা দেখা দেবে না. ভরসা করে বলা সম্ভব যে, রাশিয়ার পার্লামেন্টের দুই কক্ষই এই দলিলকে অবশ্যই হ্যাঁ বলবেন. কারণ এটা শুধু রাশিয়া ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রীয় স্বার্থের জন্যই দরকার নয়, বরং তা নিরস্ত্রীকরণের উদ্যোগকে আরও বেশী করে সহায়তা করবে. যাতে বিশ্বে রকেট ও পারমানবিক বোমা হ্রাস পায় ও অন্যান্য দেশকে, যাদের এই ধরনের মারণাস্ত্র রয়েছে তাদেরও চুক্তিবদ্ধ করা সম্ভব হয়.